শিরোনাম

প্রকাশিত : ১৪ এপ্রিল, ২০২৪, ১২:০৫ রাত
আপডেট : ১৪ এপ্রিল, ২০২৪, ০৫:৩৪ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

চার বছর পর বিধিনিষেধহীন মুক্ত পরিবেশে পহেলা বৈশাখ

শিমুল চৌধুরী ধ্রুব: [২] ১৪৩০ বঙ্গাব্দকে বিদায় জানিয়ে বাংলা বর্ষপঞ্জিতে যুক্ত হলো নতুন বছর ১৪৩১। গত চার বছর করোনা মহামারির কারণে এবং নানা বিধিনিষেধের মধ্যে ঘরোয়া পরিবেশে কিংবা সীমিত আয়োজনের মধ্য দিয়ে উদযাপিত হয় বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। সে দমবন্ধ করা পরিস্থিতি এবার নেই, তাই উচ্ছাসের মাত্রাও অনেক বেশি। 

[৩] পুরোনো বছরকে বিদায় জানিয়ে নানান আয়োজনের মধ্য দিয়ে নতুন বছরকে বরণ করছেন বাঙালিরা। প্রতিবছরের মতো এবারও রাজধানীর রমনা বটমূলে নববর্ষকে বরণ করবে ছায়ানট। এ দিন রমনা বটমূলে গান, কবিতা ও নানান আয়োজন থাকবে সংগঠনটির। ছায়ানটের এবারের প্রতিপাদ্য ‘স্বাভাবিকতা ও পরস্পরের প্রতি সম্প্রীতির সাধনা’। 

[৪] প্রতিবছর মঙ্গল শোভাযাত্রাসহ নানান আয়োজনের মাধ্যমে নববর্ষ পালন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ। গত চার বছর পূর্ণ আয়োজন করতে পারেনি চারুকলা। এবার সেসব বাধা না থাকায় বড় পরিসরে শোভাযাত্রার প্রস্তুতি নিয়েছে। ঢাবি উপাচার্য এ এস এম মাকসুদ কামাল জানিয়েছেন রোববার সকাল ৯টা ১৫ মিনিটে মঙ্গল শোভাযাত্রা শুরু হবে।

[৫] শোভাযাত্রাটি চারুকলা থেকে শুরু হয়ে ঢাকা ক্লাব ও শিশু পার্ক ঘুরে টিএসসিতে এসে শেষ হবে। এ ছাড়া বিকেল ৫টা পর্যন্ত চারুকলায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলবে। এ প্রসঙ্গে উপাচার্য বলেন, আশা করছি, গত বছরের তুলনায় এ বছর ভালো কাটবে। এবারের উপজীব্য হলো ‘অন্ধকার কাটিয়ে আলোর দিকে ধাবিত হওয়া’। 

[৬] তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ভুভুজেলা বাঁশি বাজানো ও বিক্রি করা যাবে না। এ ছাড়া ইভটিজিং প্রতিরোধে পুলিশ প্রশাসন ও প্রক্টরিয়াল টিম প্রস্তুত থাকবে। এ শোভাযাত্রায় কোনো বাণিজ্যিক প্রচারণা করা যাবে না। আইনশৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে রাজু ভাস্কর্য সংলগ্ন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গেট বন্ধ রাখা হবে। 

[৭] এছাড়া জাতীয় প্রেস ক্লাবে বর্ষবরণ উদযাপনের আয়োজন করা হয়েছে। পহেলা বৈশাখে সকাল ৯টা থেকে শুরু হবে বর্ষবরণের অনুষ্ঠান। সদস্যরা সপরিবারে খেজুরের গুড়ের পায়েস, মুড়ি-মুড়কি, বাতাসা দিয়ে মিষ্টি মুখ করবেন। বাচ্চাদের জন্য নাগরদোলা, বায়োস্কোপসহ নানা ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক শাহনাজ সিদ্দিকী সোমা।

[৮] বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী জেলায় জেলায় বর্ষবরণের প্রস্তুতি নিয়েছে। এবার তাদের পহেলা বৈশাখের সর্ববৃহৎ অনুষ্ঠানটি হবে যশোরে। এ ছাড়া খুলনা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, চাঁদপুর, নেত্রকোনা ও বরিশালে নববর্ষ পালনের প্রস্তুতি চলছে পুরোদমে। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়