শিরোনাম
◈ মিয়ানমার সীমান্তে আগের পরিস্থিতি আর সৃষ্টি হবে না: প্রত্যাশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর  ◈ জাতীয় পার্টিতে কোনো বিভেদ নাই: রওশন এরশাদ ◈ সাংবাদিকরা চাষাবাদ করছেন কি না, দেখার দায়িত্ব পেলেন শাইখ সিরাজ ◈ কারামুক্ত বিএনপি নেতা আলালের স্বাস্থ্যের খোঁজ নিলেন মঈন খান ◈ গাজায় যুদ্ধ নয়, গণহত্যা চলছে: প্রধানমন্ত্রী ◈ শুক্রবার বিশ্বে বাতাস দূষণের তালিকায় ঢাকা ছিল সপ্তম ◈ মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে নির্বাচন  নিয়ে কেউ প্রশ্ন করেনি: প্রধানমন্ত্রী ◈ লোহিত সাগরে হামলায় ব্যবহার করা হবে সাবমেরিন অস্ত্র: হুথি নেতা  ◈ ২১ বলে সেঞ্চুরি করে বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন আসজাদ ◈ যারা সরকার উৎখাত করতে চায়, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি তাদেরই কারসাজি: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর, ২০২৩, ০৯:৩৩ রাত
আপডেট : ২৫ নভেম্বর, ২০২৩, ০৯:৩৩ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

নির্বাচনে যাচ্ছে না প্রভাবশালী ৫ ইসলামী দল

আমিনুল ইসলাম: [২] নির্বাচন যাচ্ছে না প্রভাবশালী ৫ ইসলামী দল। যে কটি রাজনৈতিক দল নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত তাদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ অনেক ইসলামী দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না।

[৩] ইসলামপন্থী রাজনীতিতে যেকটি দলের প্রভাব আছে, তাদের বেশির ভাগ এখন পর্যন্ত ভোটে যাওয়ার ঘোষণা দেয়নি। এর মধ্যে কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক চারটি দল ইসলামী আন্দোলন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ও খেলাফত মজলিস। কওমি মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষকদের মাঝে বিশাল সমর্থন রয়েছে তাদের।

[৪] এর বাইরে বাংলাদেশের রাজনীতিতে অন্যতম ইসলামী ধারার প্রভাবশালী ইরাজনৈতিক দল জামায়াতে ইসলামী এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে না যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। যদিও বর্তমানে নির্বাচন কমিশনে দলটি নিবন্ধিত নয়। বাংলাদেশের রাজনীতিতে এই পাঁচটি দলকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করা হয়। 

[৫] অন্যদিকে, ইসলামপন্থী যে ৯টি দল নির্বাচনে অংশগ্রহণের ঘোষণা দিয়েছে, অতীতে এই দলগুলো থেকে সংসদ সদস্য হওয়ারও নজির কম। 

[৬] নির্বাচন কমিশনে ৪৪টি রাজনৈতিক দল নিবন্ধিত। এর মধ্যে ইসলামপন্থী দল ১১টি। এর মধ্যে সাতটি নির্বাচনে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

[৭] দলগুলো হলো বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন, ইসলামী ঐক্যজোট, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ, ইসলামিক ফ্রন্ট, বাংলাদেশ তরীকত ফেডারেশন, জাকের পার্টি ও বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি। এর মধ্যে শুধু তরীকতের গত দুটি সংসদে প্রতিনিধিত্ব ছিল।

[৮] কওমি মাদ্রাসাকেন্দ্রিক যে দুটি দল নির্বাচনে যাচ্ছে, তার মধ্যে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন এবং ইসলামী ঐক্যজোট। বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন প্রয়াত মাওলানা মোহাম্মদ উল্লাহ হাফেজ্জী হুজুর। বর্তমানে তাঁর ছেলে আতাউল্লাহ হাফেজ্জী এই দলের আমির। 

[৯] অন্যদিকে ইসলামী ঐক্যজোটের প্রতিষ্ঠাতা হাফেজ্জী হুজুরের জামাতা প্রয়াত মুফতি ফজলুল হক আমিনী। বর্তমানে তাঁর ছেলে আবুল হাসানাত আমিনী এই দলের চেয়ারম্যান। গত বৃহস্পতিবার রাতে দল দুটির শীর্ষ নেতারা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর গণভবনের কার্যালয়ে গিয়ে দেখা করেছেন। 

[১০] বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন ও ইসলামী ঐক্যজোটের দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, তারা ১০টি করে ২০টি আসন চেয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের কাছে তালিকা দিয়েছে। 

[১১] তবে তাদের মূল লক্ষ্য চারটি আসন। এর মধ্যে ইসলামী ঐক্যজোট হাসানাত আমিনীর জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ), দলের যুগ্ম মহাসচিব আলতাফ হোসাইনের জন্য কুমিল্লা-২ আসন (হোমনা-মেঘনা) চায়। আর খেলাফত আন্দোলন দলের আমির আতাউল্লাহ হাফেজ্জীর জন্য ঢাকা-২ (কামরাঙ্গীরচর, কেরানীগঞ্জ ও সাভারের একাংশ) ও মহাসচিব হাবিবুল্লাহ মিয়াজির জন্য ঢাকা-৭ (লালবাগ) আসন চাইছে। সম্পাদনা: সমর চক্রবর্তী

এআই/এসসি/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়