শিরোনাম
◈ গাজায় যুদ্ধবিরতি হলেও হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে হামলা বন্ধ হবে না:ইসরায়েল ◈ চার মাসের মধ্যেই প্রাথমিকে ১০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ◈ পিলখানা হত্যাকাণ্ডের দিবসটির গুরুত্ব বাড়াতে সরকার কার্যকর উদ্যোগ নেবেন, আশা জি এম কাদেরের ◈ সরকার সংবাদপত্রের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করে না: আইনমন্ত্রী ◈ ফিলিস্তিনের বিপক্ষে অপতথ্য ছড়ানো প্রতিরোধে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে হবে: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ◈ বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির তদন্ত প্রতিবেদন পেছাল ◈ গাজায় যুদ্ধ নয়, গণহত্যা চলছে ইসরায়েল: লুলা দা সিলভা ◈ গ্রামীণ টেলিকমসহ তার প্রতিষ্ঠানগুলোর লভ্যাংশ কাউকে দেয়া যায় না: ড. ইউনূস   ◈ মুখ খুলে মানুষ গণতন্ত্রের কথা বলতে পারছে না: ড. ইউনূস  ◈ স্বাস্থ্যসেবা বিকেন্দ্রীকরণ শুরু হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত : ২৬ জানুয়ারী, ২০২৩, ০৬:৫২ বিকাল
আপডেট : ২৭ জানুয়ারী, ২০২৩, ০৮:০৬ সকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

হলুদ-সবুজ চিহ্নিত এলাকায় ব্যবসা করতে পারবে হকাররা

মেয়র তাপস

সুজিৎ নন্দী: ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, আমরা পর্যায়ক্রমে লাল, হলুদ, সবুজ এলাকা চিহ্নিত করে দেবো। সবুজে আপনারা নির্দ্বিধায় ২৪ ঘন্টা ব্যবসা করতে পারবেন। হলুদ চিহ্নিত স্থানে আপনারা নির্ধারিত সময়ে ব্যবসা করতে পারবেন। কিছু কিছু সময় খালি করে দিতে হবে। যেহেতু যানবাহন চলাচল করে তা মাথায় রেখে সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার জন্য একটা নির্ধারিত সময়ের পরে খালি করে দিতে হবে।

মেয়র বলেন, আপনাদেরকে কেউ উচ্ছেদ করতে আসবে না। এভাবে আমরা পরিকল্পনা নিচ্ছি। পর্যায়ক্রম সেগুলো আপনাদের সাথে বসে আমরা ঠিক করব। কিন্তু আপনারা যদি আমাকে না দেখান (লাল চিহ্নিত সড়কে বসা থেকে বিরত থাকা) তাহলে আমিও আপনাদেরকে দেখাতে পারব না। আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে একসাথে কাজ করতে পারব। তাহলে আমরা সচল ঢাকা ও সুন্দর ঢাকা গড়তে পারব।

দুটো সড়ক ইতোমধ্যে লাল চিহ্নিত করা হয়েছে জানিয়ে মেয়র বলেন, আমরা মাত্র দুটো সড়ক ও সংলগ্ন এলাকা লাল চিহ্নিত করেছি। একটি হলো বঙ্গভবন থেকে জিরো পয়েন্ট ও মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার থেকে আসাদ পুলিশবক্স হয়ে জিরো পয়েন্ট। আরেকটি নগর ভবনের সামনের সড়ক ফিনিক্স সড়ক। এখানে আপনারা বসবেন না।
বৃহস্পতিবার মহানগর নাট্যমঞ্চে মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ হকার সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি আবুল হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, ভারতের ন্যাশনাল হকার্স ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক শক্তিমান ঘোষ বক্তব্য রাখেন।

সুন্দর ঢাকা গড়তে সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করে মেয়র বলেন, আপনারা সিটি করপোরেশনের অংশীজন। আপনাদের জন্যই সিটি করপোরেশন। সুতরাং সিটি করপোরেশনের নীতিমালা, নির্দেশনা পালন করলে আপনারাই উপকৃত হবেন। সিটি করপোরেশন আপনাদের প্রতিপক্ষ না। আপনাদের সকল দুঃখ, দুর্দশা, কষ্ট লাঘব করার একমাত্র প্রতিষ্ঠান হলো ঢাকা দক্ষিণ সিটি  করপোরেশন। কিন্তু আমি তখনই আপনাদের উপর আস্থা রাখতে পারব। যখন আপনারা করপোরেশনের নির্দেশনা পালন করবেন। আপনারা শৃঙ্খলাবদ্ধ হবেন। আপনারা সুষ্ঠু বাস্তবায়নে এগিয়ে আসবেন।

সাধারণত সংবর্ধনা নেন না জানিয়ে শেখ তাপস বলেন, আমি সংসদ সদস্য হওয়ার পরে জীবনের কোনও সময় সংবর্ধনা নিই নাই। মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পরেও আমি কোনও সংবর্ধনা নেইনি। আজকে এই প্রথম আমি আপনাদের মাঝে এসেছি, আপনাদের এই সংবর্ধনা নেওয়ার জন্য। সেজন্য আমি আপনাদেরকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাশেদ খান মেনন বলেন, মেয়রের প্রতি আমার একটি অনুরোধ থাকবে। একটি আবেদন থাকবে। হকার ব্যবস্থাপনায় আইন প্রনয়ণ করতে হয়তো সময় লাগবে। কিন্তু অন্তত পক্ষে, আপনার আমলে যদি একটি নীতিমালা করে দেন। তাহলে হকাররা মাস্তানের অত্যাচার, পুলিশের অত্যাচার হতে রক্ষা পাবে।

বাংলাদেশ হকার সংগ্রাম পরিষদ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসকে সংবর্ধনা দিতে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

এসএন/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়