প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সকালের রুটিন কেমন হওয়া উচিত

অনলাইন ডেস্ক : সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরে নিজেকে সামলে নিতে বেশ কিছুটা সময় লাগে। সারাটা দিন ভালোভাবে কাটাতে হলে প্রয়োজন সুন্দর কিছু অভ্যাসে নিজেকে মানিয়ে নেওয়া। তবেই মানবদেহ থাকবে সুন্দর, অসুস্থতা থেকে দূরে থাকতে পারবেন। আর শরীরের সঙ্গেই জড়িয়ে আছে মানসিক স্বাস্থ্য। তাই মন ভালো রাখার বিষয়টিও নজরে রাখতে হবে।

অধিকাংশ মানুষ যারা খুব সুন্দর জীবন অতিবাহিত করছেন অথবা নিজেকে ভালো রেখেছেন, তারা কিন্তু কয়েকটি নিয়ম মেনে চলেন এবং একেবারেই সময় নষ্ট করেন না। কোনো রকম অজুহাত না দেখিয়ে প্রতিদিনের রুটিনে আবদ্ধ থাকেন। সত্যিকার অর্থে তারাই প্রকৃত জীবনযাত্রার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন। নিজেকে ফিট, সুন্দর ও সতেজ রাখতে সকালে কী করবেন জেনে নিন।

ঘুম থেকে ওঠার সঙ্গে সঙ্গেই অল্প উষ্ণ পানি, খানিকটা সৈন্ধব লবণ ও লেবুর রস মিশিয়ে পান করা শরীরের পক্ষে ভালো। শরীরকে ডিটক্স করা খুব দরকার।

সকালবেলা ভালোভাবে অক্সিজেন নেওয়ার অভ্যাস করুন। অনুলোম-বিলোম করা খুব দরকার। প্রাণভরে নিঃশ্বাস নিন। এতে মানসিক শান্তি বজায় থাকে।

সকালে ব্যায়াম কিংবা স্ট্রেচিং খুব দরকার। এটি লিম্ফ্যাটিক সিস্টেমের ফ্লো বাড়াতে, রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক করতে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

দন্ত তেল ব্যবহার করা উচিত। মুখের ভেতর মাইক্রোব বজায় রাখা খুব দরকার। তাই এই অভ্যাসটি করতেই হবে।

প্রতিদিন স্বল্প সময় মাটিতে খালি পায়ে হাঁটার অভ্যাস করুন। এতে মন শান্ত থাকে, শারীরিক ইলেকট্রন বিন্যাস সঠিক থাকে, প্রদাহ দূরে করে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

বই পড়া অভ্যাস করুন। এতে নিজের সঙ্গে যেমন সময় কাটানো যায় তেমনই জ্ঞানও বাড়ে। আর সকালবেলায় শুধু কফি খাওয়া একেবারেই ঠিক নয়। সঙ্গে অল্প বিস্তর ফ্যাট ফ্রি মিল্ক, কিংবা নারকেলের দুধ দিয়ে কফি বানিয়ে খেতে পারেন।

গরম পানি নয়, প্রতিদিন ঠাণ্ডা পানিতে গোসল করার অভ্যাস করুন। এতে বুদ্ধি বাড়ে, ওজন হ্রাস পায়, এবং শরীরের ইমিউনিটি বাড়ে।

মেডিটেশন করা খুব ভালো। এতে শরীর ও মন সতেজ থাকে। যেকোনো কাজে আগ্রহ এবং উৎসাহ বাড়ে। আর প্রতিদিন নতুন কিছু শেখার চেষ্টা করুন, দেখবেন জীবন সুন্দর।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত