প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] নৌপথে ঢাকা যাওয়ার স্বপ্ন পূরণ হলো লক্ষ্মীপুরবাসীর

জাহাঙ্গীর লিটন: [২] দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর অবশেষে নৌপথে (লঞ্চ যোগে) ঢাকা থেকে লক্ষ্মীপুর যাওয়ার স্বপ্ন পূরণ হলো লক্ষ্মীপুরবাসীর। সোমবার (১৫ নভেম্বর) বিকেলে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) প্রিন্স অব রাসেল-৩ উদ্বোধন করায় এ স্বপ্ন পূরণ হয়। নৌ-ট্রাফিক বিভাগের পরিচালক রফিকুল ইসলাম ফিতা কেটে ঢাকা থেকে লক্ষ্মীপুর লঞ্চ সার্ভিসের উদ্বোধন করেন।

[৩] এসময় উপস্থিত ছিলেন লঞ্চের মালিক জামাল হোসেন, ‘ঢাকা টু লক্ষ্মীপুর লঞ্চ চাই’ পরিষদের আহ্বায়ক আইনজীবী আবদুস সাত্তার পলোয়ান, পরিষদের সদস্য আফজাল হোসেন অনিক ও রেদওয়ান উল্লাহ খান।

[৪] লঞ্চ সার্ভিস চালু হওয়ায় লক্ষ্মীপুরবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শাহজাহান কামালসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে লঞ্চ চাই পরিষদ।

[৫] সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, লক্ষ্মীপুরের মজুচৌধুরীরহাট লঞ্চঘাটটি মেঘনা নদী হয়ে নৌপথে ২১ জেলার সহজ যোগাযোগ মাধ্যম। এ বিশাল নৌপথে রাজধানীর সঙ্গে যোগাযোগের ব্যবস্থা ছিল না। একপর্যায়ে ঢাকা-লক্ষ্মীপুর লঞ্চ সার্ভিস চালু করার দাবি তোলেন জেলাবাসী। দীর্ঘ দিনের এ দাবী অবশেষে সোমবার লঞ্চ সার্ভিসের উদ্বোধনের মাধ্যমে জেলাবাসীর স্বপ্ন পূরণ হয়েছে বলে মনে করছেন তারা।

[৬] প্রিন্স অব রাসেল-৩ নামের বিলাসবহুল লঞ্চটি সদরঘাট থেকে দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে মজুচৌধুরীরহাট ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) সকাল ৭টায় মজুচৌধুরীরহাট ঘাট থেকে সদর ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। প্রতিদিন একই নিয়মে লঞ্চ সার্ভিসটি চালু থাকবে বলে জানা যায়।

[৭] এ ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সাত্তার পালোয়ান বলেন, লঞ্চ সার্ভিস চালু জেলার মানুষের প্রাণের দাবি ছিলো। তাদের দাবি পূরণ হয়েছে। এখন থেকে লক্ষ্মীপুর থেকে স্বাচ্ছন্দ্যে ঢাকায় যেতে পারবে মানুষ। প্রচারণা না থাকায় ৫০ জন যাত্রী নিয়ে লঞ্চটি সদরঘাট থেকে লক্ষ্মীপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে গেছে বলে জানান তিনি।

সর্বাধিক পঠিত