প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পরিবার সঙ্গে নিতে ইংল্যান্ড ক্রিকেটারদের জন্য বিশেষ কোন ব্যবস্থা নেই: অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

স্পোর্টস ডেস্ক: [২] এ বছর অ্যাশেজ সফরে পরিবারকে সাথে নেওয়ার ব্যাপারে অনুমতি দিতে ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের জন্য কোন বিশেষ ব্যবস্থা থাকবে না বলে স্পষ্ট জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন।

[৩] আগামী ৮ ডিসেম্বর থেকে ব্রিসবেনে শুরু হবে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের অ্যাশেজ। তবে পূর্ণ শক্তির দল নিয়ে অ্যাশেজে ইংল্যান্ড খেলবে কি-না সেটি দেখার বিষয়। কিছু খেলোয়াড়, বিশেষ করে যাদের ছোট বাচ্চা রয়েছে, তাদের নিয়ে উদ্বেগ থাকছে। কারন অস্ট্রেলিয়ার কঠোর সীমান্ত নিয়ন্ত্রণের কারণে পরিবার নিয়ে সফর করা কঠিন হবে।

[৪] গত বুধবার রাতে ওয়াশিংটনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সাথে আলোচনা শেষে সাংবাদিকদের মরিসন জানান, অ্যাশেজ যথা নিয়মে এগিয়ে যাচ্ছে, দেখতে ভালোবাসবেন। কিন্তু কোন বাড়তি সুযোগ দেয়া হবে না। মহামারী নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করে মরিসন বলেন, এখানে কোন বিশেষ চুক্তি নেই কারণ ভ্যাকসিন নেয়া মানুষগুলো ভ্রমণ করতে পারবে। প্রধানমন্ত্রী আরও জানান, ভ্যাকসিনের পর ক্রিকেটার কিংবা কাজের জন্য বা পড়াশোনার জন্য আসা মানুষদের মধ্যে অনেক পার্থক্য দেখতে পাচ্ছেন না।

[৫] সীমান্ত বন্ধ এবং কোয়ারেন্টাইন সুবিধার সীমিত জায়গার কারণে বিদেশে হাজার হাজার অস্ট্রেলিয়ান এখনও আটকে আছেন, এতে জটিল পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছেন মরিসন। তাই ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের পরিবারকে বিশেষ সুবিধা দিলে এটি নিয়ে সম্ভবত আলোচনা শুরু হবে। মরিসনের সাথে রাতের খাবারের পর জনসন সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘আমি এটি উত্থাপন করেছি এবং তিনি বলেছেন, পরিবারের জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করা হবে।

[৬] তিনি আরও বলেন, ক্রিসমাসে পরিবার থেকে দূরে থাকা খুবই কঠিন ক্রিকেটারদের। যাওয়া ও আসার সমাধান নিয়ে শুধুমাত্র সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। মরিসনের এমন মন্তব্য সত্বেও, বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ব্রডকাস্টার এবিসিকে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) বলেছে, তারা পূর্ণ দল আসার ব্যাপারে আশাবাদী এবং পুরো পাঁচটি টেস্ট খেলবে। – সিডনি হেরাল্ড

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ