প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বান্ধবীর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার পোশাককর্মী, গ্রেপ্তার এক

ওমর ফয়সাল: [২] ফটিকছড়িতে বান্ধবীর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ২১ বছর বয়সী এক গার্মেন্টসকর্মী সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

[৩] সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাতে উপজেলার ভূজপুর থানাধীন দাঁতমারা ইউপির পূর্ব সোনাই লাল বাইন্তির পার্শ্বে রাবার বাগানে এ ঘটনা ঘটে।

[৪] ভিকটিম গার্মেন্টসকর্মীর বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলার মোহাম্মদপুরে। এ ঘটনায় রাতে ভিকটিম নিজে বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে ভূজপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

[৫] মামলার আসামিরা হলো- দাঁতমারা ইউনিয়নের নতুনপাড়া গণি সওদাগর বাড়ির আব্দুল হকের পুত্র আরিফ হোসেন (২৫), একই ইউনিয়নের পূর্ব সোনাই গ্রামের হুদা মিয়ার পুত্র নুর মিয়া প্রকাশ মনু মিয়া (২৫), ২ নম্বর ওয়ার্ডের ফরিদ মিয়ার পুত্র জাকির হোসেন (৩৫) ও কড়ইবাগান এলাকার মৃত মনা মিয়ার পুত্র জাকির হোসেন প্রকাশ মহিবুলকে (২২)। ভিকটিমের অভিযোগের প্রেক্ষিতে রাতেই মামলার প্রধান আসামি আরিফ হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

[৬] মামলার বিবরণে জানা যায়, ধর্ষিতা গার্মেন্টকর্মী দাঁতমারা হেয়াঁকো এলাকায় তার সহকর্মী বান্ধবীর মা জনৈক জ্যোৎস্না আক্তারকে মা ডাকেন। গত ১০/১২ দিন আগে জনৈক জ্যোৎস্না বেগমের বাড়িতে বেড়াতে যায় ওই তরুণী। সেখানে স্থানীয় আরিফ হোসেনের সাথে প্রেমের সম্পর্কে গড়ে উঠে। পরে ওই কথিত প্রেমিক আরিফ হোসেন তার মায়ের কাছে নিয়ে যাবে বলে ওই তরুণীকে ফুসলিয়ে সোমবার রাতে তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেলযোগে দাঁতমারা পূর্ব সোনাই ভাওন্তির পার্শ্বে রাবারবাগানে ভিতরে নিয়ে যায়। পরে আরিফ সহ তার তিন বন্ধু মিলে ওই তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে।

[৭] দাঁতমারা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ গোলাম আফছার জানান, থানায় মামলা হওয়ার পর সোমবার রাতে অভিযান চালিয়ে আরিফ হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ভিকটিমকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় অন্য আসামিদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি। সম্পাদনা: হ্যাপি

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত