প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কে হচ্ছেন আল্লামা আহমদ শফীর উত্তরসূরি, মাদ্রাসার মুহতামিম পদে আলোচনায় পাঁচ শিক্ষক

আব্দুল্লাহ মামুন: [২] দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালক কে হচ্ছেন-তা ঠিক করতে আগামী বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) মজলিসে শুরার বৈঠক ডাকা হয়েছে। এদিন সকাল ১০ টায় চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এ বৈঠক শুরু হবে। শুরার এই বৈঠকেই ঠিক হবে কে হচ্ছেন আল্লামা আহমদ শফীর উত্তরসূরি। একইসঙ্গে প্রতিষ্ঠানের শায়খুল হাদিস ও শিক্ষা পরিচালক পদেও নতুন নিযুক্তি দেবে দেশের প্রাচীন কওমি মাদ্রাসাটি। বাংলাট্রিবিউন।

[৩] ২০২০ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যুর পরেরদিন (১৯ সেপ্টেম্বর) মজলিসে শুরার বৈঠকে হাটহাজারী মাদ্রাসার পরিচালনা করতে তিন জনের একটি কমিটি করে দেওয়া হয়। ওই কমিটিতে ছিলেন, মাওলানা শেখ আহমদ, মুফতি আব্দুস ছালাম ও মাওলানা ইয়াহিয়া।

[৪] হাটহাজারী মাদ্রাসার কয়েকজন শিক্ষক ও সিনিয়র ছাত্রদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আগামী বুধবার মাদ্রাসার শুরার বৈঠককে কেন্দ্র করে চাপা পরিস্থিতি বিরাজ করছে। বিশেষ করে গত শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) সরকারের একাধিক সংস্থার পক্ষ থেকে শুরার কয়েকজন সদস্যের সঙ্গে সাক্ষাতের পর পরিস্থিতি আরও ঘোলাটে হয়ে ওঠে। ছাত্রদের পক্ষ থেকে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের কাছে ‘নতুন মহাপরিচালক’ নিয়োগ না দিয়ে পরিচালনা প্যানেল তৈরির আবেদন করা হয়েছে।

[৫] হাটহাজারী মাদ্রাসার শূরা সদস্য, ফতেপুর নছেরুল উলুম মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা মাহমুদুল হাসান বলেন, আগামীকাল বুধবার হাটহাজারী মাদ্রাসার শূরা সদস্যদের বৈঠক হবে। এতে মহাপরিচালক (মুহতামিম), সহকারী মহাপরিচালক (নায়েবে মুহতামিম) ও শায়খুল হাদিস, শিক্ষা পরিচালক নির্বাচন করা হবে। এরই মধ্যে দাওয়াতনামা শূরার সব সদস্যের হাতে পৌঁছে দেয়া হয়েছে। আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যুর পর মাদ্রাসায় ১৩ জন শূরা সদস্যের মধ্যে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী এবং মাওলানা নোমান ফয়জী ইতিপূর্বে মারা গেছেন। বর্তমানে শূরা সদস্যের সংখ্যা ১১ জন।

[৬] হেফাজতে ইসলামের আঁতুড়ঘর হিসেবে পরিচিত এই মাদ্রাসার মহাপরিচালক হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন মাদ্রাসার পাঁচ সিনিয়র শিক্ষক। তাঁরা হলেন, মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির তিন সদস্য মাওলানা আব্দুস ছালাম চাটগাঁমী, আল্লামা শেখ আহমদ এবং মাওলানা ইয়াহিয়া। এ ছাড়া আলোচনায় রয়েছেন মুফতি জসিম উদ্দিন এবং মাওলানা শোয়েবও।

[৭] মাদ্রাসার আরেক শূরা সদস্য, ফটিকছড়ির জামিয়া উবাইদিয়া নানুপুর মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা সালাহউদ্দিন নানুপুরী বলেন, বুধবার শূরা বৈঠক হবে। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হবে মাদ্রাসার নতুন মহাপরিচালক কে হবেন। শূরা বৈঠক যেটি ভালো মনে করবে সেটিই সিদ্ধান্ত নেবে। তবে বৈঠকে বাবুনগরীর মৃত্যুতে শূন্য হওয়া পদে নিয়োগ হতে পারে। আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী একসময় মাদ্রাসার নায়েবে মুহতামিম ছিলেন। কিন্তু মৃত্যুর আগে তিনি পরিচালনার কোনো দায়িত্বে ছিলেন না। তিনি শুধু প্রধান শায়খুল হাদিস ও শিক্ষা সচিবের দায়িত্বে ছিলেন।মানবজমিন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত