প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ঢাকায় বৃত্তাকার নৌপথ প্রকল্পের কাজ শুরু, আপাতত সেতু ভাঙা হবে না

সুজিৎ নন্দী: [২] বৃত্তাকার নৌপথ প্রকল্পের কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। প্রাথমিক অবস্থায় যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল করবে। যে কারণে ১৬টি সেতু ভেঙে ফেলার যে কথা বলা হয়েছিলো তা আপাতত ভাঙা হচ্ছে না। এই প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত আছে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়, নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়, পরিবেশ, স্থানীয় সরকার ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়। পাশাপাশি ঢাকা উত্তর, ঢাকা দক্ষিণ, নারায়নগঞ্জ ও গাজীপুর সিটি করপোরেশন এই প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত আছে। বিআইডাব্লিউটিএ সূত্রে এতথ্য জানা যায়।

[৩] বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান বলেন, সেতু নির্মাণকারী সংস্থাগুলো নৌযান চলাচলের কথা বিবেচনা করেনি। এছাড়া বিআইডব্লিউটিএর পক্ষ থেকেও নৌপথ সচল করার বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া শুরু হয়েছে।

[৪] রাজধানীতে যানবাহনের চাপ কমাতে চারপাশ ঘিরে বৃত্তাকার নৌপথ চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয় প্রায় ২০ বছর আগে। সে সময় এই নৌপথ দিয়ে ঢাকার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে সহজে যেতে পারবে মানুষ। বৃত্তাকার নৌপথে ২০০৪, ২০১০, ২০১৩ ও ২০১৪ সালে চার দফা ওয়াটার বাস ও লঞ্চ নামানো হয়েছিলো। তবে সব কটি অল্প দিন পর বন্ধ হয়ে যায়।

[৫] পুনরায় নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় আবার বৃত্তাকার নৌপথ চালু করতে যাচ্ছে। এর প্রাথমিক কাজ শুরু করেছে। তবে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) তথ্যানুযায়ী, ঢাকা শহরের চারদিকে বৃত্তাকার নৌপথে ২১টি সড়ক ও রেলসেতু রয়েছে। এর মধ্যে ১৬টি সেতুরই উচ্চতা কম। সেতুগুলো নির্মাণ করেছে সওজ, রেলওয়ে এবং স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তর।

[৬] বিআইডব্লিউটিএ বলছে, বৃত্তাকার নৌপথ চালু করতে এবং শুধু মাত্র যাত্রীবহন করতে আমিনবাজার বেইলি সেতু, আশুলিয়া সেতু, প্রত্যাশা সেতু, কামারপাড়া সেতু-১, কামারপাড়া সেতু-২, টঙ্গী সড়কসেতু-২, টঙ্গী সড়কসেতু-৩, টঙ্গী রেলসেতু-১, টঙ্গী রেলসেতু-৩, তেরমুখ সেতু, পূর্বাচল সেতু, ইছাপুরা সেতু, চনপাড়া সেতু, কাউন্দিয়া সিন্নিরটেক সেতু, রুস্তমপুর সেতু এবং উত্তরা ১৬ নম্বর সেক্টরসংলগ্ন দেওয়ান বেড়িবাঁধ সেতু ভেঙে ফেলতে হবে না।

সর্বাধিক পঠিত