শিরোনাম
◈ উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা অর্থনীতিকে বিকশিত করে: প্রধানমন্ত্রী ◈ মগবাজার মোড়ে একটি ভবনে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ৩ ইউনিট ◈ যুক্তরাজ্যকে এক লাখ রোহিঙ্গা পুনর্বাসনের অনুরোধ জানালো বাংলাদেশ ◈ প্রয়োজনে দেশে বেকার ভাতা চালু হবে, পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ◈ বিএনপির দায়িত্বহীনতা গণতন্ত্রের পথে অন্তহীন বাধা ◈ পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু শুধু হাত দিয়ে খোলা সম্ভব নয়  ◈ পদ্মা সেতুর প্রতিটি পিলারে ক্যামেরা বসছে, যানবাহনের গতি নিয়ন্ত্রণে ‘স্পিড গান’ ব্যবহার হবে ◈ সাত মাস পর দেশে ফিরলেন রওশন এরশাদ ◈ ব্যবসায়ীর সাবেক স্ত্রী’র সঙ্গে পরকীয়ার অভিযোগ, ৪ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা ◈ ঢাবির ‘খ’ ইউনিট ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ, পাসের হার ৯.৮৭ শতাংশ

প্রকাশিত : ১২ জুলাই, ২০২১, ১২:১৮ রাত
আপডেট : ১২ জুলাই, ২০২১, ১২:১৮ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

[১] উখিয়ায় দুস্থ ও অসহায় রোগীদের পাশে রামু সেনানিবাসের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দল

কায়সার হামিদ মানিক: [২] কক্সবাজারের উখিয়ায় করোনা পরিস্থিতির এই সংকটময় সময়ে দুস্থ ও অসহায় রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশন।

[৩] রবিবার (১১ জুলাই) উখিয়া ডিগ্রী কলেজ মাঠে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকাল থেকে দিনব্যাপী এই মেডিক্যাল ক্যাম্পে ৪১০ জন রোগীকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের দ্বারা চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়।

[৪] এছাড়াও চিকিৎসা সেবা প্রাপ্ত রোগীদের সেনাবাহিনী কর্তৃক বিনামূল্যে ঔষধ সরবরাহ করা হয়। রামু সেনানিবাস সুত্রে জানা যায়, সিএমএইচ রামু এবং ফিল্ড এ্যম্বুলেন্স এর বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সমন্বয়ে একটি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দল এই চিকিৎসা সেবা কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেন। চলমান লকডাউন পরিস্থিতিতে স্থানীয় রোগীদের কাঙ্খিত চিকিৎসা সেবা পেতে অনেকটা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। করোনাকালীন সেনাবাহিনীর এ চিকিৎসা সহায়তা স্থানীয় রোগীদের স্বাস্থ্য সেবার পাশাপাশি দূর্যোগ মোকাবেলায় অনেকটা সহায়ক ভুমিকা পালন করবে। সেনাবাহিনীর এ ধরনের জনসেবামূলক কার্যক্রম স্থানীয় গরীব ও অসহায় মানুষের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।

[৫] করোনা ভাইরাসের এই দুর্যোগকালীন সময়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশন তথা রামু সেনানিবাস ও এর অধীনস্থ সেনানিবাসের সেনাসদস্যরা কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম জেলার বিভিন্ন উপজেলায় ত্রাণ বিতরণসহ বিভিন্ন জনহীতকর কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এর ই ধারাবাহিকতায় আগামীতে কক্সবাজার জেলার অন্যান্য উপজেলাতেও এ ধরনের মেডিক্যাল ক্যাম্পেইন পরিচালনা করবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশন।

  • সর্বশেষ