প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রংপুরের ভেজাল ওষুধ কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

আফরোজা সরকার [২] রংপুরে জে এন্ড টি ল্যাবরেটরিজ (ইউনানি) নামে একটি কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ভেজাল ওষুধ উদ্ধার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। সোমবার (১৪ জুন) দুপুরে সিটি কর্পোরেশন এলাকার ১৭নং ওয়ার্ডের আইডিয়াল মোড় ভেজাল ওষুধ বাজারজাতকরণ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে কোম্পানির মালিকের ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

[৩] সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ওষুধ কোম্পানির সঠিক কাগজপত্র না থাকার শর্তেও ভেঝাল ওষুধ তৈরি করে বাজারজাতকরণ করা হচ্ছে। অন্যদিকে বোতলের গায়ে মোড়ক ব্যবহারে অনুমোদন না নিয়ে মোড়ক ব্যবহার করে ওষুধ বাজারজাত করেছেন।

[৪] একাধিক ওষুধ বাজারজাতকরণের অপরাধে কারখানা মালিকের ৫০হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ৬ মাসের বিনশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচলনা করেন সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ফিরুজুল ইসলাম।

[৫] এসময় উপস্থিত ছিলেন, রংপুর মহানগর পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডিবি অ্যান্ড মিডিয়া) ফারুক আহমেদ,
তিনি জানান, উপপুলিশ কমিশনার (ডিবি) কাজী মুত্তাকী ইবনু মিনানের নেতৃত্বে বেলা ১২টায় রংপুর মহানগরীর আইডিয়াল মোড় শান্তিধারা এলাকার জে এন্ড টি ল্যাবরেটরিজের (ইউনানি) কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।
অভিযানে পরিবেশের ছাড়পত্র, ওষুধ কোম্পানির সঠিক কাগজপত্র না থাকা ও বোতলের গায়ে মোড়ক ব্যবহারে অনুমোদন না নিয়ে একাধিক ওষুধ বাজারজাতকরণের অপরাধে কারখানা মালিকের ৫০হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ৬ মাসের বিনশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

[৬] তিনি আরো বলেন, আমরা বিপুল পরিমাণ ইউনানি ওষুধ প্রস্তুতের ক্যামিকেল, অননুমোদিত ওষুধ ও বিভিন্ন সরঞ্জামাদিসহ সর্বমোট ২০ লাখ টাকার মালামাল জব্দ করা হয়। অভিযানে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বাধিক পঠিত