প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তার মুখে ঠেলে দিয়েছে সরকার: চট্টগ্রাম নগর সভাপতি

রিয়াজুর রহমান রিয়াজ: [২] ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম নগর সভাপতি আলহাজ্ব জান্নাতুল ইসলাম বলেছেন, বৈশ্বিক মহামারী করোনার অজুহাতে দুই শিক্ষাবর্ষে লাগাতার ১৬ মাস ধরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখায় চরম ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে দেশের শিক্ষাব্যবস্থা। প্রাথমিক থেকে উচ্চশিক্ষাস্তর পর্যন্ত দেশের প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তার মুখে ঠেলে দিয়েছে সরকার।

[৩] তিনি বলেন, মহামারীর পরও গণপরিবহন, অফিস-আদালত, কারখানা-গার্মেন্টস মার্কেটসহ সবকিছুই খোলা রয়েছে কিন্তু একই অজুহাতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে সরকার দ্বিচারিতা এবং চরম অযোগ্যতার পরিচয় দিয়েছে। আমরা মনে করি করোনা একটা মিথ্যা অজুহাত ও রাজনৈতিক দুরভিসন্ধি। সর্বশেষ শিক্ষা মন্ত্রণালয় ১৯তম সাধারণ ছুটি বাড়িয়ে উপমহাদেশে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার ঘৃণিত নজির স্থাপন করেছে।

[৪] তিনি বলেন, শিক্ষামন্ত্রী বলছেন, ‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার জন্য অভিভাবকদের কোন চাপ নেই’ তার এ বক্তব্যে প্রমাণ করে দেশের সাধারণ মানুষের সঙ্গে মন্ত্রীদের কোনো সম্পর্ক নেই। শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংস করতেই সরকার সুদূরপ্রসারি ষড়যন্ত্রেলিপ্ত।

[৫] বৃহস্পতিবার (৩ জুন) সকাল ১১টায় চট্টগ্রাম নগরীর দেওয়ানহাট চত্বরে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর এর উদ্দ্যোগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

[৬] মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন, শায়খুল হাদিস আল্লামা ফরিদ আহমদ আনসারী, নগর সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ রেজাউল করিম, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওলানা সানা উল্যাহ নূরী, জাতীয় শিক্ষক ফোরাম চট্টগ্রাম মহানগরের সভাপতি দিদারুল মাওলা, ইশা ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি ছাত্র নেতা মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন, শ্রমিক নেতা নোয়াব মিয়া প্রমুখ। সম্পাদনা: হ্যাপি

সর্বাধিক পঠিত