প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আমাদের সময় ডটকমে সংবাদ প্রকাশের পর শাখাওয়াত এর পাশে এক হৃদয়বান

রাজু আহমেদ:[২] ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত শাখাওয়াত’কে মানবিক সহায়তা দিয়েছেন এক হৃদয়বান ব্যক্তি। শুক্রবার রাতে তার পিতা আব্দুল মালেক এর  সহায়তায় ১০ হাজার টাকা পাঠিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই হৃদয়বান।

[৩] প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চত করে অাব্দুল মালেক আপ্লুতকন্ঠে বলেন-“আমার মাথায় যত চুল ততােবছর এই মহান ব্যক্তি নেকহায়াত নিয়ে বেঁচে থাকুন”। তিনি এতটুকুই মহান তাঁর ফােন নম্বরটি কাউকে দিতেও নিযেধ করেছেন।

[৪] প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার (২৫ মে) আমাদের সময় ডটকমে “সন্তানের চিকিৎসায় রক্ত বিক্রি করতে চান অসহায় পিতা” শিরোনামে একটি মানবিক প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। পরদিন সকালে এ প্রতিবেদকের ম্যাসেঞ্জারে শাখাওয়াতের সঙ্গে যােগাযােগের নম্বর চান হৃদয়বান ওই ব্যাক্তি।

[৫] উল্লেখ্য, গতবছরের এমন সময় শাখাওয়াতের মাথায় ব্রেইন টিউমার হলে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অপারেশন শেষে দীর্ঘ দুই মাস ৬ দিন হাসপাতালে থাকার পর বাড়ি ফিরলেও অারােগ্যলাভ হয়নি আজও। বরং অপারেশনের স্হানে পয়জন জমে দিন দিন সমস্যা আরও প্রকট হওয়ার পাশাপাশি বর্তমানে পুরাে শরীর শক্তিহীন (অবশ) হয়ে আসছে। ডান চােখ দিয়ে যতসামান্য দেখতে পেলেও বাম চােখটি অচল হওয়ার পথে।

[৬] শাখাওয়াতের অসহায় বৃদ্ধ পিতার উক্তি- “এ জীবন আর ভালো লাগে না, চােখের সামনে বিনা চিকিৎসায় ধুঁকে ধুঁকে বাবা আমার এখন মৃত্যুদােয়ারে! পিতা হিসেবে এর চেয়ে যন্ত্রণা আর কি হতে পারে? বৃদ্ধ বয়সে উপার্জনও করতে পারি না। খেয়ে না খেয়ে যায় দিন চিকিৎসা করাইমু কি দিয়া? জমিজমা থাকলে বিক্রি করে সন্তানের চিকিৎসা করাইতাম। কেউ যদি রক্ত কিনতো রক্ত বিক্রি করতাম সন্তানের চিকিৎসার জন্য”।

[৭] সন্তানের জীবন বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রী-দেশ ও প্রবাসের হৃদয়বানদের সহায়তা চেয়েছেন অসহায় এই পিতা। সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নের সুলেমানপুর (পুরানহাটি) গ্রামের বাসিন্দা তিনি।সুলেমানপুর গ্রামের ইউ,পি সদস্য সিরাজুল হক, হাবিবুর রহমান, স্হানীয় সংবাদকর্মী তানভীর আহমদসহ গ্রামবাসী জানিয়েছেন, সন্তানের চিকিৎসা দূরের কথা, দারিদ্র্যের কষাঁঘাতে জর্জরিত অসহায় এই পরিবারে দু’বেলা আহার যােগাড় করা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। গ্রামবাসীর সহায়তায় বিগতদিনে অপারেশন হয়েছিল তার।

[৮] মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ হৃদয়বান ব্যক্তিরা এগিয়ে অাসলে হয়তো তাকে বাঁচানাে সম্ভব। সাখাওয়াতকে বাঁচাতে হলে উন্নত চিকিৎসাসেবা লাগবে। এতে লাখ টাকা প্রয়ােজন বলে ধারণা দিয়েছেন একাধিক চিকিৎসক।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত