প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গণমাধ্যমে মুখ খোলায় টিগ্রের হাসপাতালে সশস্ত্র অভিযান ইথিওপিয়ান সেনাবাহিনীর

সুমাইয়া ঐশী: [২] টিগ্রে থেকে সেনাবাহিনী সরিয়ে নেবে ইরিত্রিয়া এমনটাই কথা ছিলো। সৈন্য প্রত্যাহার শুরু হয়েছে বলেও জানিয়েছিলেন ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ। তবে পুরোটাই যে রাজনৈতিক চাল, তা প্রকাশ হতে সময় লাগেনি। বেরিয়ে এসেছে দুই দেশের সেনাবাহিনীর যৌথ অত্যাচারের চিত্র। সিএনএন, ওয়ার্ল্ড নিউজ এরা

[৩] সম্প্রতি টিগ্রের হাসপাতালে মানবিক সহায়তা পৌঁছাতে দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন ঐ অঞ্চলের চিকিৎসকরা। সিএনএন এর অনুসন্ধানে এনিয়ে মুখ খুলে চিকিৎসকরা জানান, এসব সহায়তা আটকে দিচ্ছে ইথিওপিয়া ও ইরিত্রিয়ার সেনাবাহিনী। এরপরই চলতি সপ্তাহের শুরুতে ম্যাশিনগান ও গ্রেনেড নিয়ে টিগ্রের হাসপাতালে অভিযান চালায় ইথিওপিয়ার সেনাবাহিনী।

[৪] টিগ্রের চিকিৎসকরা বলছেন, এ বিষয়ে যারা গণমাধ্যমে কথা বলেছে এবং তথ্য সরবরাহ করেছে তাদের খোঁজে আসে সেনারা। তাদের দাবি, এসব তথ্য দিয়ে দেশের ভাবমূর্তিকে কলঙ্কিত করা হয়েছে। তবে এর আগেই, হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান অনেক চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী ও রোগী।

[৫] সোমবারও হামলা চালানো হয়। যেসব চিকিৎসক সেনাবাহিনীকে সহযোগিতা করবে না তাদের একটি তালিকা চাওয়া হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে মানবাধিকার সংগঠন এমএসএফও। সম্পাদনা: আসিফুজ্জামান পৃথিল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত