প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

 [১] কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনের ভাষণে বাইডেনের অঙ্গীকার, ‘ভবিষ্যত আমেরিকারই থাকবে’

রাশিদুল ইসলাম : [২] ওয়াশিংটনে ক্যাপিটলে দেওয়া ভাষণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন আমরা একবিংশ শতাব্দী জয়ের জন্য চীন এবং অন্যান্য দেশের সাথে একটি প্রতিযোগিতায় রয়েছি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, যুক্তরাষ্ট্রকে অবশ্যই তার বিরোধীদের কাছে প্রমাণ করতে হবে যে ‘গণতন্ত্র এখনও কাজ করে।’ সিএনএন

[৩] বাইডেন বলেন, এখন এই ১০০ দিন পরে আমি বলতে পারি, আমেরিকা আবার এগিয়ে যাচ্ছে। তার প্রশাসন নির্বাচনী ওয়াদা পূর্ণ করবে এবং এক নতুন উদাহরণ সৃষ্টি করবে। তিনি শিশু ও পরিবারদের জন্য তার সরকারের জাতীয় সহযোগিতা কর্মসূচির ব্যাপক সম্প্রসারণের প্রস্তাব দেন।

[৪] বাইডেন প্রশ্ন তুলে বলেন, আমাদের গণতন্ত্র কি আমাদের জনগণের সবচেয়ে চাপের প্রয়োজনকে পূরণ করতে পারে? আমাদের গণতন্ত্র কি মিথ্যা, ক্রোধ, ঘৃণা এবং ভয়কে কাটিয়ে উঠতে পারে যা আমাদের বিভক্ত করে দিয়েছে? আমেরিকার শত্রুরা – বিশ্বের স্বৈরশাসকরা বাজি ধরছে না এটি পারে না, তারা ভুল। এবং আমরা তাদের ভুল প্রমাণ করব।

[৫] বাইডেন বলেন, স্বৈরশাসকরা ভবিষ্যতে জিততে পারবেন না, ঐক্যকে আরো নিখুঁত গণতন্ত্রের একমাত্র উপায় হিসাবে একক ব্যক্তি হিসেবে উপস্থাপনের আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, একটি মানুষ, একটি জাতি, একটি আমেরিকা।

[৬] মার্কিন প্রেসিডেন্ট তার উচ্চাভিলাষী পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করে বলেন, দুই বছরের জন্য সরকারি ব্যয়ে কিন্ডারগার্টেন পূর্ব পর্যায়ের শিক্ষা এবং তরুণদের জন্য দুই বছরের বিনা বেতনে কমিউনিটি কলেজে শিক্ষার ব্যবস্থা করা হচ্ছে যার সিংহভাগ বরাদ্দ যোগাবে ধনী ব্যক্তির করের অর্থ।

[৭] বাইডেন বলেন প্রেসিডেন্ট পুতিনকে বলেছি যেনো আমরা বাড়াবাড়ি না করি যা কোনো পরিণতিতে গড়ায়। মিত্রদের সঙ্গে অধিকতর কাজ করার বিষয়ে গুরুত্ব আরোপ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহারের বিষয়ে ন্যাটো সদস্যদের সঙ্গে সমন্বয় রক্ষায় গুরুত্ব দেন বাইডেন।

[৮] মার্কিন প্রেসিডেন্ট অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ, বৈধ অভিবাসীদের জন্য সাধারণ ক্ষমা এবং লিঙ্গ ও বর্ণের ক্ষেত্রে বৈষম্যহীন সমাজ গড়ে তোলার অঙ্গীকার করে বলেন, আমরা একে অপরের সাথে প্রতিযোগিতা করতে এত ব্যস্ত থাকতে পারি না যে একাদশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ জয়ের প্রতিযোগিতায় অন্যান্য দেশের চেয়ে পিছিয়ে না পড়ি।

[৯] করোনাকে পরাস্ত করতে প্রয়োজনীয় সবকিছু করতে মার্কিন জনগণকে আহবান জানিয়ে বাইডেন বলেন এই ভাইরাসকে পরাস্ত করতে আরও অনেক কিছু করতে হবে। আমাদের সুরক্ষা কমিয়ে ফেলতে পারি না। বাইডেন স্মরণ করিয়ে দেন যে ১৬ বছর ও তার ঊর্ধ্বে যাদের বয়স তারা এখন টিকা নিতে পারে।

[১০] টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এই ভাষণ সরাসরি প্রতিনিধি পরিষদ কক্ষে শুনেছেন প্রায় ২০০ জন। সেখানে বিধায়ক ও গুরুত্বপূর্ণ সরকারি কর্মকর্তারাও ছিলেন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত