প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ফুটবল বিশ্বে আলোড়ন তুলে সুপার লিগ অংশ নেয়ার ঘোষণা ইউরোপের ১২ ক্লাবের

লিহান লিমা: [২] বার্সেলোনা ও রিয়েল মাদ্রিদসহ ইউরোপের প্রথম সারির ১২টি ইংলিশ, স্প্যানিশ ও ইতালিয়ান ক্লাব ক্লাব চ্যাম্পিয়ন্স লিগের পরিবর্তে নতুন শুরু হতে চলা ইউরোপিয়ান সুপার লিগে অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এপি, বিবিসি, গার্ডিয়ান

[৩] ক্লাবগুলোর মধ্যে রয়েছে ইংল্যান্ডের ‘বিগ সিক্স’ বলে পরিচিত আর্সেনাল, চেলসি, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার সিটি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও টটেনহ্যাম হটস্পার। তিনটি লা লিগা এবং তিনটি ক্লাব সিরি-এর। এখনও পর্যন্ত জার্মানি এবং ফ্রান্সের কোনও ক্লাব এই টুর্নামেন্টে অংশ নেয় নি।

[৪] প্রাথমিকভাবে ২৩ বছরের জন্য এই চুক্তি হয়েছে। এই ১২ ক্লাবের সঙ্গে আরও তিনটি ক্লাব শীঘ্রই যোগ দেবে বলে জানিয়েছে সুপার লিগ কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠাকালীন এই ১৫ ক্লাবের সঙ্গে প্রতিবছর কোয়ালিফাই করে আসা ৫ ক্লাব, মোট ২০ দল নিয়ে হবে এই টুর্নামেন্ট। নতুন এই লিগে অংশ নেওয়ার জন্য ‘প্রতিষ্ঠাতা ক্লাবগুলো ৩৫ হাজার ৫৭১ কোটি টাকা করে পাবে। আগমী সপ্তাহেই টুর্নামেন্টের ঘোষণা দেয়া হবে।

[৫] সুপার লিগের প্রথম চেয়ারম্যান হয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদের প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেন্তিনো পেরেস। সুপার লিগের ভাইস চেয়ারম্যান এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের অন্যতম কর্ণধার জোয়েল গ্লেজার বলেছেন, ‘বিশ্বের সেরা ক্লাব এবং ফুটবলারদের একই ছাতার তলায় নিয়ে আসা হচ্ছে, যাতে তারা গোটা মরশুম ধরেই একে অপরের সঙ্গে খেলতে পারে। সুপার লিগ ইউরোপিয়ান ফুটবলে নতুন এক অধ্যায়ের সূচনা করবে। বিশ্বমানের প্রতিযোগীতা এবং পরিকাঠামোর পাশাপাশি আর্থিক স্বচ্ছলতাও থাকবে। ’

[৬]এই লিগকে ‘বিদ্রেহী’ আখ্যা দিয়ে লিগের আয়োজকদের ‘লোভী’ ও ‘ধূর্ত’ বলে মন্তব্য করছেন ফুটবল ভক্তরাসহ রাজনৈতিক নেতা ও কনফেডারেশনগুলো। বিশ্ব ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা-ফিফা, ইউরোপিয়ান ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা- উয়েফা চরম নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে।

[৭]উয়েফার বিবৃতিতে এই ক্লাবগুলিকে নিষিদ্ধ করার হুমকি দেওয়ার পাশাপাশি আইনী ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে। উয়েফা জানায়, ‘ফিফা এবং আমাদের সকল সহযোগী সংগঠন ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই প্রকল্প বন্ধ করার জন্য সব রকম পদক্ষেপ করবে। কিছু ক্লাব শুধু তাদের নিজেদের স্বার্থে এই পরিকল্পনা করেছে, বিশেষ করে যখন আগের থেকে আরও বেশি সামাজিক সংহতির প্রয়োজন।’

[৮]উয়েফার বিবৃতিতে একাত্মতা প্রকাশ করেছে ইংল্যান্ডের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন, প্রিমিয়ার লিগ কর্তৃপক্ষ, রয়্যাল স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন, লা লিগা, ইতালিয়ান ফুটবল ফেডারেশন এবং লেগা সিরি আ।

[৯]ফিফার বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘ফিফা আন্তর্জাতিক ফুটবলের কাঠামোর বাইরে ও ফুটবলের মৌলিকত্বের প্রতি শ্রদ্ধা না রাখা বিচ্ছিন্ন এই লিগকে স্পষ্টভাবে অসমর্থন জানাচ্ছে।’

[১০]যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন টুইট বার্তায় বলেন, ‘এটি ঘরোয়া লিগের মূলে আঘাত করবে। ফুটবলকে ধ্বংস করার পরিকল্পনা এটা। এই ক্লাবগুলোর উচিত ভক্তদের ও ফুটবল কমিউনিটির কাছে জবাবদিহি করা।’

[১১]ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টর বাসভবন এলিসি প্যালেসের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘ ফুটবলের সংহতি ও ক্রীড়া চেতনাকে হুমকির মুখে ঠেলে দেয়ার এই প্রকল্পে অংশ নিতে প্রত্যাখ্যান করায় ফরাসি ক্লাবগুলির সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট। ফ্রান্স জাতীয় হোক বা ইউরোপিয়ান, ফুটবলের মৌলিক প্রতিযোগিতাগুলোর মর্যাদা ও অখণ্ডতা রক্ষায় এলএফপি, এফএফএফ, উয়েফা ও ফিফার নেওয়া সব পদক্ষেপকে সমর্থন করবে।

[১২]এই ১২ক্লাবের ভক্ত সমর্থকরাও সামাজিক মাধ্যমে করা পোস্টে সুপার লিগে যোগ দেয়ার সিদ্ধান্তকে ‘অর্থলালসা’ ও ‘ বেইমানি’ বলে মন্তব্য করছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত