প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ফ্রান্সে ১৫ বছরের নিচে যৌন সম্পর্ক হলেই ধর্ষণ, পার্লামেন্টে আইন পাশ

রাশিদুল ইসলাম : [২] সম্মতি দেয়ার বয়সের পূর্বে যৌন সম্পর্ক হলে তাকে ধর্ষণ হিসেবে চিহ্নিত করবে ফ্রান্স। ফ্রান্সে এখন যৌনতায় সম্মতি দেওয়ার বয়স ১৫। অর্থাৎ, ১৫ বছরের পূর্বে যৌন সম্পর্ক হলে তা সম্মতিক্রমে হোক বা জোরপূর্বক দুটোকেই ধর্ষণ হিসেবে দেখা হবে। দি লোকাল

[৩] এ বিষয়ে বিলটি ফ্রান্সের পার্লামেন্টে পাশ হয়েছে। দেশটির আইনমন্ত্রী এরিক মোরেট্টি এটাকে তাঁদের সমাজব্যবস্থা এবং শিশুদের জন্য ‘ঐতিহাসিক আইন’ বলে উল্লেখ করেছেন।  কোনো প্রাপ্তকবয়স্ক আর সম্মতির ভিত্তিতে ১৫ বছরের কম বয়সীদের সঙ্গে যৌন সম্পর্কে জড়াতে পারবে না। যদিও আইনে বলা হয়েছে, অপ্রাপ্ত বয়স্কদের সঙ্গে সর্বোচ্চ ৫ বছরের বড় কেউ চাইলে যৌন সম্পর্কে জড়াতে পারবে। সেক্ষেত্রে এটি ধর্ষণ হবে না।

[৪] দেশটির প্রেমিক-প্রেমিকাদের রক্ষায় আইনে এমন ধারা যুক্ত করা হয়েছে। তবে জোরপূর্বক কিছু হলে সেটি যে বয়সেরই হোক না কেনো কঠিন শাস্তি পেতে হবে। কোনও ভাবেই অভিযুক্তের আইনজীবী সেই ঘটনাকে যৌন সম্মতির রূপ দিতে পারবেন না।

[৫] এত দিন ফ্রান্সে নারীদের ক্ষেত্রে সম্মতিসূচক যৌনতায় বয়স ছিল ১৫ বছর। কিন্তু সে ক্ষেত্রে যদি ১৫ বছরের ছোট কোনও মেয়ে ধর্ষণের শিকার হত, তা হলে অভিযুক্তের আইনজীবী সেই ঘটনাকে সম্মতিসূচক যৌনতা প্রমাণ করার চেষ্টা করতে পারতেন। যার ফলে এক দিকে যেমন অনেক ধর্ষণের ঘটনাই সম্মতিপূর্ণ যৌনতা হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হত, অন্য দিকে তেমনই অনেক অভিযুক্তও শাস্তি এড়িয়ে যেতে পারতেন।

[৬] নতুন এই আইনের ফলে তা আর কোনও ভাবেই সম্ভব নয় বলে দাবি করছে ফরাসি সরকার। ১৫ বছরের থেকে ছোট কিশোরীর সঙ্গে যৌনতা ধর্ষণ হিসাবেই গণ্য হবে এবং দোষীকে সর্বোচ্চ ২০ বছরের কারাবাস হবে। তবে এর নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে অনেক আইনজীবীই চিন্তিত। দু’জনের সম্মতিতে সহবাসও আইন অনুযায়ী এ ক্ষেত্রে ধর্ষণ হিসাবেই যে হেতু গণ্য হবে তাই নিরপরাধীও শাস্তি পেতে পারেন, মত আইনজীবীদের একাংশের।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত