প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শাড়িকে মাধ্যম বানিয়ে চোরাইকৃত মালামাল পাচার, আটক চক্রের ৯ নারী

রাজু চৌধুরী: চোরদের চুরি করার অভিনব কৌশলের শেষ নেই। বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে মানুষকে বোকা বানিয়ে চুরি করে সর্বস্ব। তবে কোন না কোন সময় যখন পুলিশের হাতে ধরা পড়ে তখন তাদের বিচিত্র রকমের ফন্দি এবং অভিনব কৌশল সম্পর্কে তথ্য পাওয়া যায়।

বুধবারে (১৪ এপ্রিল) চট্টগ্রাম নগরের কোতোয়ালী থানা পুলিশ জানায়, সেরকম অভিনব কায়দায় চুরি করে এমন একটি নারী চোর চক্রের ৯ জন সদস্যকে পুলিশ মঙ্গলবার দুপুরে ফিরিঙ্গী বাজার এলাকার প্রগতি সংঘ ক্লাবের পাশে ৩৫/বি একটি বহুতল ভবন থেকে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ জানায়, বাসা বাড়িতে কাজের নাম করে চুরি করা এদের পেশা। কাজের নাম করে তারা খাতির জমিয়ে বিভিন্ন গল্পজুড়ে দেয় গার্ড ও শ্রমিকদের সাথে। এর ফাঁকে কৌশলে চুরি করে চক্রটি। তারা মূলত নির্মাণাধীন ভবনে চুরি করে। সুযোগ বুঝে স্টোর রুম থেকে ইলেক্ট্রিক তার (ক্যাবল), পাইপ ফিটিংসের অংশসহ, স্যানিটারি ফিটিংস এবং প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র চুরি করে। চুরি করা জিনিস পাচারের অভিনব মাধ্যম হলো তাদের পরিহিত শাড়ি। সেই শাড়ীর ভিতরে কৌশলে জিনিস লুকিয়ে নিয়ে যায়। এভাবে নগরের কোতোয়ালী এলাকায় দুদফা চুরি করে ৩য়বার পুলিশের হাতে ধরা পড়ে ওই চক্রের ৯ নারী সদস্য।

গ্রেপ্তারকৃত আসামিরা হলেন, আকবরশাহ থানার কাঁচা বাজারের উত্তর পাশে জসিমের কলোনির রোকসানা বেগম (২৮), হেলেনা বেগম (২৮), শাহিনুর বেগম (২৫), রেনু বেগম (৩০), বিবি রহিমা (৩৫) ও পারভিন বেগম (২৮) এবং হালিশহর থানাধীন ছোটপুল, জাকের কলোনি এলাকার পারভিন আক্তার (২৬), বিবি ফাতেমা (৩০), মরিয়ম বেগম (৪৫)। কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো নেজাম উদ্দিন জানান, গত ৯ ও ১২ এপ্রিল নগরের ফিরিঙ্গিবাজার এলাকায় নির্মাণাধীন ৮ তলা বিল্ডিয়ে যায় ওই ৯ নারী, সেখানে শ্রমিকের নাম করে বিল্ডিংটিতে প্রবেশ করে। পরে একসময় তারা শ্রমিকদের সাথে নানা খোশ গল্প করে দেড় ঘন্টা কাটিয়ে দেয়। এই ফাঁকে ভবনটির ২য় তলায় থাকা স্টোর রুম থেকে ৩৩ বান্ডিল তার (ক্যাবল) চুরি করে। চুরি করা তারগুলো শাড়ীর আড়ালে নিয়ে পালিয়ে যারা তারা।

এভাবে তৃতীয় দফায় চুরি করতে আসলে বিল্ডিয়ের মালিক ও কর্মচারীদের সন্দেহবশত আটক করলে তারা চুরির কথা স্বীকার করে। পরে তাদের পুলিশ গ্রেপ্তার করে। ওসি আরও বলেন, ‘ওই ৯ নারী চোর মোট তেত্রিশ বান্ডিল তার (ক্যাবল) চুরি করে। যার আনুমানিক মূল্য ২ লাখ ২০ হাজার টাকা।’ এ ঘটনায় ওই নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ের মালিক এনামুল হক প্রকাশ এনাম (৩৮) তাদের বিরুদ্ধে ১টি মামলা করেছেন বলে জানান ওসি নেজাম উদ্দিন।

সর্বাধিক পঠিত