প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ত্বকের যত্নে সূর্যমুখী তেলের ৫ আশ্চর্য গুণ

আতাউর অপু: ত্বকের যত্নে প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহারের বিভিন্ন ক্ষেত্র রয়েছে। সূর্যমুখী বীজের তেল বা সূর্যমুখী তেল আপনার চাহিদা পূরণ করতে পারে। রান্নায় ব্যবহার হয় সূর্যমুখী তেল। এর স্বাস্থ্যগত উপকারিতা অনেক। সেইসঙ্গে ত্বকের যত্নেও রয়েছে বেশ গুণ। ভিটামিন ও মিনারেল সমৃদ্ধ সূর্যমুখী তেলে রয়েছে প্রসাধনী গুণ। ফলে ত্বক পায় পূর্ণ উজ্জ্বলতা।

ভারতের জীবনধারা ও স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাই এক প্রতিবেদনে ত্বকের যত্নে সূর্যমুখী তেলের পাঁচ উপকারিতার কথা বর্ণনা করা হয়েছে। আসুন, সে সম্পর্কে জেনে নিই—

ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করে

সূর্যমুখী তেল শুষ্কতার বিরুদ্ধে লড়াই করে ত্বকের আর্দ্রতা বাড়ায়। গবেষণায় দেখা গেছে, ত্বকের আর্দ্রতা বাড়াতে সূর্যমুখী তেল কার্যকর। এই তেলে থাকা লিনোলিক অ্যাসিডসহ অন্যান্য উপাদান ত্বককে আর্দ্র রাখে। এ ছাড়া রয়েছে ভিটামিন ই, যা ত্বককে গভীর থেকে আর্দ্র রাখে।

ব্রণ প্রতিরোধ করে

সূর্যমুখী তেলে রয়েছে নন-কমডোজেনিক প্রাকৃতিক উপাদান, যা ত্বকের যত্নে দারুণ কার্যকর। তাই ব্রণ নিয়ে দুশ্চিন্তা না করে আপনি ব্যবহার করতে পারেন। ভিটামিন ই শক্তিশালী প্রাকৃতিক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা সূর্যমুখী তেলে রয়েছে। এটি ফ্রি রেডিক্যাল থেকে ত্বককে সুরক্ষা দেয়, যা ব্রণের জন্য দায়ী। সূর্যমুখী তেলে রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি ও অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান, যা ব্রণ হওয়ার সম্ভাবনা থেকে দূরে রাখে।

বয়সের ছাপ দূর করে

সূর্যমুখী তেলে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান ত্বকের বলিরেখাসহ নানা সমস্যা দূর করে বয়সের ছাপ পড়া থেকে সুরক্ষা দেয়। এতে থাকা ভিটামিন ই ত্বকের যত্নে কার্যকর। সূর্যমুখী তেল কোলাজেন উৎপাদন বাড়িয়ে ত্বককে নরম, কোমল ও তারুণ্য এনে দেয়।

সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে রক্ষা

সূর্যমুখী তেলে রয়েছে প্রাকৃতিক সান প্রটেকটিভ উপাদান। এতে থাকা ভিটামিন এ ও সি সান ড্যামেজ থেকে রক্ষা করে ত্বককে সুস্থ ও মসৃণ রাখে। সূর্যমুখী তেলে রয়েছে ফ্যাটি অ্যাসিড ও লিনোলিক অ্যাসিড, যা সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে।

ত্বকের সার্বিক যত্ন

সূর্যমুখী তেলে রয়েছে ভিটামিন, মিনারেল ও ফ্যাটি অ্যাসিড, যা ত্বকের স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্যে উপকারী। সূর্যমুখী তেলে রয়েছে ভিটামিন এ, সি, ডি ও ই এবং মিনারেল, যেমন—কপার, জিঙ্ক ও আয়রন; যা সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে সৌন্দর্য বাড়াতে সহায়ক। এ তেল ত্বককে আর্দ্র রেখে নরম ও কোমল করে।

যেভাবে ত্বকে সূর্যমুখী তেল ব্যবহার করবেন

অল্প সূর্যমুখী তেল হাতের তালুয় নিন এবং উষ্ণ না হওয়া পর্যন্ত ঘষতে থাকুন। এরপর সম্পূর্ণ শুষে না নেওয়া পর্যন্ত ত্বকে ম্যাসাজ করুন। আরো ভালো ফল পেতে এর সঙ্গে কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল, ল্যাভেন্ডার বা লেমন এসেনশিয়াল অয়েল মেশাতে পারেন। এ ছাড়া এমন প্রসাধন কিনতে পারেন, যাতে সূর্যমুখী তেলের উপাদান রয়েছে। আপনি যদি আরামদায়ক বডি ম্যাসাজ চান, তবে সূর্যমুখী তেলের জুড়ি নেই।

সর্বাধিক পঠিত