প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও জিয়াউর রহমান একইসূত্রে গাঁথা : মাহবুবের রহমান শামীম

রিয়াজুর রহমান: বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম বলেছেন, মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের ইতিহাস পরিপূর্ণ পাবে তখন, যখন স্বাধীনতার ঘোষক জিয়াউর রহমানের অবদানকে স্বীকার করা হবে।

তিনি বলেন, এই চট্টগ্রামের মাটি থেকে জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন। সে ঘোষণায় সাড়া দিয়ে দেশের সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে সশস্ত্রবাহিনীসহ সকলে মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছেন। জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়ে বসে থাকেননি, তিনি রণাঙ্গনে শত্রুর মোকাবেলা করে জীবনবাজি রেখে আমাদের একটি স্বাধীন রাষ্ট্র উপহার দিয়েছেন।

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও জিয়াউর রহমান একইসূত্রে গাঁথা। জিয়াউর রহমানকে অস্বীকার করা মানে মুক্তিয্দ্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে অস্বীকার করা।

রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম নগরীর কাজীর দেউড়ি নাসিমন ভবনস্থ মাঠে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিএনপির কেন্দ্রীয় ঘোষিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতার প্রতীক। তিনি এ দেশের খেটে খাওয়া মানুষের মুক্তির নায়ক। স্বাধীনতা যুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার ও স্বাধীনতার মহান ঘোষক। জিয়াউর রহমান ও জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে কোনো লাভ হবে না।

এদেশের ১৬ কোটি মানুষের হৃদয়ে শহীদ জিয়াউর রহমান আছেন। খেতাব কেড়ে নিতে পারবে ফ্যাসিবাদ এ সরকার, কিন্তু জনগণের ভালোবাসা কেড়ে নিতে পারবে না।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান এর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মোস্তাক আহমেদ খান সঞ্চলনায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি ও আহবায়ক কমিটির সদস্য আলহাজ্ব মোশাররফ হোসেন, আবদুল গাফফার চৌধুরী, নাজমুল মোস্তফা আমিন, জামাল হোসেন, আবু মো. নিপার, মোজাম্মেল হক ভিপি প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত