প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] তিন দিবসে ২৫ কোটি টাকার ফুল বিক্রির আশা গদখালীর ফুলচাষিদের

বাবুল আক্তার ও রহিদুল খান: [২]পয়লা ফাল্গুন, ভালোবাসা দিবস ও একুশে ফেব্রুয়ারি এই তিন দিবসে ২৫ কোটি টাকার ফুল বিক্রির আশা করছেন যশোরের গদখালীর ফুলচাষিরা। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার ফুলের ফলন ভালো হয়েছে। ভালো দাম পাওয়ার আশা করছেন চাষিরা।

[৩] গোলাপ, রজনীগন্ধা, জারবেরা, গ্লাডিওলাসহ ১০ প্রজাতির ফুল চাষ হয় ফুলের রাজ্য গদখালীতে। যশোর জেলায় বছরে প্রায় দেড়শত কোটি  টাকার ফুল বিক্রি হয়। সারা বছর বাজারে ফুলের সরবরাহ থাকলেও পয়লা ফাল্গুন, ভালোবাসা দিবস ও একুশে ফেব্রুয়ারি  ফুলের চাহিদা বেড়ে যায় কয়েকগুণ। বাজার ধরতে দিনরাত পরিশ্রম করছেন এখানকার ফুলচাষিরা।

[৪] যশোর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানায়, জেলার আটটি উপজেলায় ১০ হাজার হেক্টর জমিতে ফুলের চাষ হয়ে থাকে। ঝিকরগাছা উপজেলার গদখালী ও পানিসারা গ্রামেই ফুল চাষ করছেন ৬ হাজার হেক্টর জমিতে। উৎপাদিত ফুল দিয়ে দেশের মোট চাহিদার ৭০ ভাগ যোগান দেন এখানকার চাষিরা।

[৫] এ বছর ৫৫ হেক্টর জমিতে গাঁদা, ২২ হেক্টর জমিতে জারবেরা, ২৭২ হেক্টর জমিতে গ্লাডিওলাস, ১০৫ হেক্টর জমিতে গোলাপ, ১৬৫ হেক্টর জমিতে রজনীগন্ধা, এবং ৬ হেক্টর জমিতে অন্যান্য ফুলের চাষ হয়েছে।

[৬] গদখালী গ্রামের রুবেল হোসেন জানান, বর্তমানে গদখালী বাজারে পাইকারি ফুল বিক্রি হচ্ছে প্রতি পিস গোলাপ ৪ টাকা, গ্লাডিওলাস রং ভেদে প্রতি পিস ১০/১২ টাকা, জিপসি ফুলের বান্ডেল ৪০০ টাকা, ক্যালেন্ডার প্রতি বান্ডেল ৫০০ টাকা, গাঁদা ১০০ পিস ১৫০ টাকা ও জারবেরা প্রতি পিস ৮ টাকা। সম্পাদনা: অনন্যা আফরিন

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত