প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রংপুরের কাউনিয়া হারাগাছ পৌরসভা নির্বাচনে কে হচ্ছেন নৌকার মাঝি

আফরোজা সরকার: [২] রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার বিড়ি শিল্প নগড়ী হারাগাছ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র পদে প্রার্থী চূড়ান্ত না হওয়ায় একাধিক সম্ভাব্য প্রার্থী মাঠে জোর তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে কেউই দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে যাবেন না বলে জানিয়েছেন। আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি বাছাই, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১১ আর ২৮ ফেব্রুয়ারি হবে ভোট গ্রহন।

[৩] নির্বাচন কমিশন কর্তৃক পৌরসভা নির্বাচনের তফশিল ঘোষণার পর থেকেই দেশের অন্যান্য পৌরসভার মতো ভোটারদের বাড়ি-বাড়ি শুরু হয়েছে রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছ পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীদের গণসংযোগ ও দৌড়ঝাপ। দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হওয়ায় অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের ন্যায় আওয়ামী লীগের চারজন প্রার্থী তাদের নিজেদের দলীয় মনোনয়ন পেতে দলের জেলা উপজেলার শীর্ষ নেতাদের দ্বারস্থ্য হচ্ছেন।

[৪] ইতোমধ্যে গত শুক্রবার উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় দলীয় মনোনয়ন পেতে চারজন প্রার্থী আবেদন করেছেন। মনোনয়ন প্রত্যাশি কেউ আবার মধ্যম সারির নেতাদের নিয়ে গোপনে বৈঠক করছে গভীর রাত পর্যন্ত পৌর নির্বাচনের ভোটের হাওয়ায় তৃণমূল পর্যায়ের রাজনীতি যেন চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। ভোটারদের মধ্যে নির্বাচনী আলোচনা শুরু হয়েগেছে। বিভিন্ন জনসমাগম স্থানে যেমন- ট্যাম্পু ষ্ট্যান্ড, চায়ের দোকান, পান বিড়ির দোকান, হোটেল রেস্তোরা এবং প্রধান সড়কের মাথা, চৌমাথা ৫/৭ জন জড় হলেই শুরু হয় নির্বাচনী আলোচনা। কেউ কেউ সম্ভাব্য প্রার্থীদের ভালোদিক কেউবা অতিতের ভূল ত্রুটির খতিয়ানের বৈছে আলোচনার ঝড়।

[৫] গত কয়েকদিন থেকে দলীয় নেতা কর্মী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের মুখে মুখে এখন একটি বাক্য কাউনিয়ার হারাগাছ পৌরসভা নির্বাচনে কে হচ্ছেন নৌকার মাঝি। হারাগাছ পৌরবাসী একজন সৎ ও যোগ্যতম মেয়রকে প্রত্যাশা করছেন দলীয়ভাবে। এখন প্রয়োজন শুধু রাজনৈতিক দলগুলোর পক্ষ থেকে যোগ্যতম প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়া।

[৬] কাউনিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সুমিয়ারা পারভীন জানান, হারাগাছ পেরৈসভা নির্বাচনে মোট ৪৯হাজার ১৭জন ভোটার এই প্রথম ইভিএম এর মাধ্যমে তাদের ভোটাধিকার প্রদান করবেন। আগামী ২ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত প্রার্থীরা তাদের মনোয়নপত্র সংগ্রহ এবং জমা দিতে পারবেন। ৎ

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত