প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সর্দি-কাশি থেকে মুক্তির সহজ উপায়

ডেস্ক রিপোর্ট: শীতকালে ঠান্ডা, কাশির মতো সিজনাল ফ্লু-এ আক্রান্ত হওয়া স্বাভাবিক বিষয়। এই সাধারণ রোগেই অনেকে অসুস্থ ও অস্বস্তি অনুভব করে থাকেন। সিজনাল ফ্লু প্রতিহত করার কোনো উপায় এখন পর্যন্ত বের হয়নি। তবে কিছু ওষুধ এবং ইনহেলার ব্যবহারে তিন-চার দিনের মধ্যে ঠান্ডা, কাশি সেরে যায়। তবে ওষুধ ব্যবহারের ফলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসেবে মাথাঘোরা, দুর্বলতা এবং ক্ষুধামন্দা দেখা দিতে পারে।

বাড়িতেই ঠান্ডা-কাশির প্রতিকার করতে পারেন। ঠান্ডা-কাশি দ্রুত সারাতে কিছু হ্যাকস দেওয়া হলো-

বাষ্পীয় থেরাপি

ঠান্ডা-কাশি প্রতিকারে একটি সাধারণ ও প্রাচীন চিকিৎসা ইনহেলিং সিস্টেম। একটি পাত্রভর্তি গরম পানি নিন। এবার তোয়াল দিয়ে মুখ ঢেকে নিয়ে শ্বাস নিন। এই প্রক্রিয়াটি নাকে কফ জমা, সাইনাসের চাপ কমানোর কার্যকরী চিকিৎসা। বিকল্প হিসেবে গরম পানিতে গোসল করতে পারেন।

এক কোয়া রসুনের বিস্ময়

চিকিৎসকরাও রসুন খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। রসুনে উচ্চমাত্রায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। এটি গলাব্যথা, কফ এবং সাধারণ ফ্লু থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করে। তবে কুসুম গরম পানিতে লবণ মিশিয়ে গার্গল করলে সাধারণ ফ্লু থেকে দ্রুত প্রতিকার পাওয়া যায়। এছাড়া এক চিমটি লবণ আর রসুন সত্যিই সিজনাল ফ্লু থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করে।

হারবাল টি

উষ্ণ বেভারেজ এই সমস্যার সাময়িক প্রতিকার দিতে পারে। তবে কুসুম গরম পানি সারাদিন ঠান্ডা থেকে মুক্তি দিতে পারে। দারুচিনি, আদা, মধু ও লেবু প্রাকৃতিকভাবেই উষ্ণ, এর তৈরি হারবাল টি সহজেই সর্দি প্রতিকার করতে পারে।

টিসি ও লেবুর রস

টিসির বীজে উচ্চমাত্রায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান রয়েছে। এর সঙ্গে লেবু মিশিয়ে জুস তৈরি করে খেলে ঠান্ডা কমাতে সাহায্য করে। লেবুর জুসের সঙ্গে টিসি মিশিয়ে খান। এই মিশ্রণটি ব্যথা উপশমে বেশ কার্যকরী।

সূত্র : দেশ রূপান্তর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত