প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ৬ মাসে ভারতে ৩০ কোটি মানুষকে টিকা দেয়া হবে

রাশিদুল ইসলাম : [২] অক্সফোর্ড ভ্যাকসিন ছাড়পত্র পাওয়ার পর ভারতে খুব তাড়াতাড়ি টিকা দেয়া শুরু করবে সেরাম ইনস্টিটিউট। এরপর ভারত বায়োটেকের টিকা অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। আগামী ৬ থেকে ৮ মাসে দেশটিতে ৩০ কোটি মানুষকে টিকা দেওয়ার যাবতীয় খরচ বহন করবে দেশটির সরকার। নীতি আয়োগের সদস্য ডক্টর ভিকে পল জানান এর পাশাপাশি কম দামেই টিকার বিতরণ হবে ভারতে। টাইমস অব ইন্ডিয়া

[৩] ভারতে টিকা বিতরণে৩১টি হাব তৈরি করা হয়েছে। একই সঙ্গে ২৯ হাজারের বেশি স্থানে টিকা শিবির তৈরি হবে। টিকা সরবরাহ ও কোল্ড-স্টোরেজে টিকা সংরক্ষণ ও শিবিরগুলিতে পৌঁছে দেওয়ার প্রস্তুতি খতিয়ে দেখা শুরু হয়েছে।

[৪] একই সঙ্গে কীভাবে টিকার ইঞ্জেকশন দেওয়া হবে, টিকা দেবেন যারা তাদের সে বিষয়ে জ্ঞান কতটা, যদি কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয় বা কেউ অসুস্থ হয়ে পড়েন, তাহলে দ্রুত কী ব্যবস্থা নিতে হবে ইত্যাদির মহড়া চালানো হবে।

[৫] পেশা, বয়স ইত্যাদির ভিত্তিতে গুরুত্ব বুঝে চারটি ক্যাটেগরির প্র্রথমেই রয়েছে ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, আশাকর্মী, মেডিকেল শিক্ষার্থীরা। সব মিলিয়ে প্রায় এক কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া হবে আগে। দ্বিতীয়ত, পুলিশ, প্রশাসন, মিউনিসিপ্যালিটির কর্মী মিলিয়ে অন্তত ২ কোটি জনকে টিকা দেওয়ার তালিকা তৈরি হয়েছে। তৃতীয় ক্যাটেগরিতে রাখা রয়েছে ২৬ কোটি মানুষকে, যাদের বয়স ৫০ বছরের বেশি। চতুর্থ ক্যাটেগরিতে থাকবে কোমবির্ডিটির রোগীরা এবং ৫০ বছরের কম লোকজন যাদের পেশার জন্য বেশি মেলামেশা করার প্রয়োজন হয়।

[৬] কাদের ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে, কী পরিমাণ ডোজ বিতরণ করা হচ্ছে এবং টিকা সংরক্ষণের কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে তার রিপোর্ট রাখতে অনলাইন ট্রেনিং মডিউল তৈরি হচ্ছে। ‘ইলেকট্রনিক ভ্যাকসিন ইনটেলিজেন্স নেটওয়ার্ক’ নামে এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে টিকার বিতরণ ও সংরক্ষণের সব তথ্য রেকর্ড করা থাকবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত