প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সৈয়দ ফায়েজ আহমেদ: কেন পাহাড়িদের নিজেদের এলাকায় আলাদা অধিকার দিতে হবে?

সৈয়দ ফায়েজ আহমেদ : রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণের অভিযোগের প্রেক্ষিতে মিয়ানমারের এক জেনারেল বলেছিলেন, রোহিঙ্গারা অসুন্দর, আমাদের সু-পুরুষ সেনারা কোন দুঃখে তাদের ধর্ষণ করতে যাবে? আইরনী হচ্ছে, রোহিঙ্গা মুসলমানদের জন্য বাংলাদেশে কেঁদে ভাসানো একটা বড় অংশের লোক মনে করে, বাংলাদেশের সেনাবাহিনী, ঘি-মাখন খাওয়া বীর পুরুষেরা, ওইসব নাক- বোচা পাহাড়িদের ধর্ষণ করে এইগুলো বানানো কথা।

আবার বাংলাদেশের আরেক প্রতিবেশী ভারতের জাতীয়তাবাদীদের দাবি, কাশ্মীরে যে বছরের পর বছর ধরে সেনা মোতায়েন করা আছে সেটার কারণ কাশ্মীরিরা বিচ্ছিন্নতাবাদী, তারা পাকিস্তানের প্ররোচণায় দেশ ভাগ করতে চায়। একই রকম আইরনি হচ্ছে, কাশ্মীরিদের অধিকারে সোচ্চার এক বড় অংশের বাংলাদেশিদের দাবি হচ্ছে, বাংলাদেশের পার্বত্য চট্রগ্রামে বছরের পর বছর সেনা মোতায়েন করা আছে কারণ পার্বত্য জাতিগোষ্ঠীর লোকজন বিচ্ছিন্নতাবাদী, তারা ভারতের প্ররোচনায় দেশ ভাগ করতে চায়।

কাশ্মীরের সঙ্গে আরেকটা ব্যাপারও মেলে, কাশ্মীরিদের একটা জরুরি দাবি হচ্ছে, ওই বিশেষায়িত অঞ্চলে জমির মালিকানা ও ব্যবহারের অধিকার কাশ্মীরিদের থাকা উচিত। এই দাবির সঙ্গে একমত হওয়া অনেক বাংলাদেশিই আবার বলেন যে, পাহাড়ে কেন অন্য এলাকার মানুষ গিয়ে ইচ্ছামতো বাস করতে পারবে না। কেন পাহাড়িদের নিজেদের এলাকায় আলাদা অধিকার দিতে হবে? জাতীয়তাবাদ মানেই এমন আইরনিতে ভরা।

মূলত জাতীয়তাবাদ মানস হচ্ছে, আমার চেয়ে যারা দুর্বল, সংখ্যায় কম তাদের সঙ্গে ইচ্ছামতো চোটপাট করবো আর আমার চেয়ে শক্তিশালীরা এরকম চোটপাট করলে তখন মানবধিকার ফলাবো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত