প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চীনের আপত্তি সত্ত্বেও তাইওয়ানকে ক্ষেপণাস্ত্র দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

ডেস্ক রিপোর্ট: চীনের আপত্তি থাকা সত্ত্বেও তাইওয়ানের কাছে অস্ত্র বিক্রিতে সম্মত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন সরকারের এমন পদক্ষেপের ফলে চীনের সঙ্গে উত্তেজনা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিবিসি জানায়, বুধবার তাইওয়ানের কাছে ১৮০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রি অনুমোদন দিয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, যা মধ্যে রয়েছে ১৩৫টি অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র।

এক বিবৃতিতে মন্ত্রণালয়টি জানায়, তাইওয়ানকে বিভিন্ন ধরণের ১৩৫টি ক্রুজ মিসাইল বিক্রি করতে সম্মত হয়েছে মার্কিন সরকার।

এসব অস্ত্রের মধ্যে ভারী ও হালকা রকেট লঞ্চারও বিক্রি করা হবে। এসব সরঞ্জামের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১.৮ বিলিয়ন ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৫ হাজার ২৮০ কোটি টাকার বেশি)।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, তাইওয়ানকে আমরা সর্বাধুনিক স্ল্যাম-ইআর ক্ষেপণাস্ত্রটি বিক্রি করছি। এটি যেকোনো আবহাওয়ায় দিন কিংবা রাতে উৎক্ষেপণ করা সম্ভব। স্থির ও গতিশীল যেকোনো লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম এই ক্ষেপণাস্ত্র। যা তাইওয়ানকে বর্তমান ও ভবিষ্যতের হুমকি মোকাবিলায় সাহায্য করবে।

এদিকে ক্ষেপণাস্ত্র ক্রয় প্রসঙ্গে তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এসব ক্ষেপণাস্ত্র বিশ্বাসযোগ্য যুদ্ধক্ষমতা তৈরি করবে এবং অসম যুদ্ধে শক্তি যোগাবে।

চীনের সঙ্গে তাইওয়ানের দীর্ঘদিনের বিরোধ চলে আসছে। তাইওয়ান নিজেদের স্বাধীন দাবী করলেও, সেটিকে চীনা সরকার তাদের অধ্যুষিত এলাকা মনে করে থাকে।

একটি স্বাধীন সরকার তাইওয়ান পরিচালনা করলেও শিগগিরই ভূখণ্ডটিতে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে চীন। যার প্রেক্ষিতে তাইওয়ানকে সমরাস্ত্র সরবরাহ করছে ওয়াশিংটন।

এদিকে তাইওয়ানকে অস্ত্র বিক্রির ব্যাপারে আগেই আপত্তি জানিয়ে আসছে চীন। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় রয়টার্সকে জানায়, তাইওয়ানের সঙ্গে এ অস্ত্র চুক্তি ওয়াশিংটনের সঙ্গে বেইজিংয়ের সম্পর্কে বড় ধরনের প্রভাব ফেলবে।দেশ রুপান্তর

সর্বাধিক পঠিত