প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিকল্প খেলোয়াড় তৈরি করছে বিসিবি

ডেস্ক রিপোর্ট: ব্যস্ত সূচীতে ঠাসা টাইগারদের আগামী বছরটা। টাইগারদের বিকল্প তৈরি রাখতে তাই জাতীয় পুলে ক্রিকেটারের সংখ্যা বাড়ানোর লক্ষ্য বিসিবি’র। জানিয়েছেন জাতীয় দলের নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন। সাদা বলে প্রস্তুতি আর নতুন ক্রিকেটারদের পরখ করতেই আয়োজন করা হয়েছে তিন দলের ওয়ানডে টুর্নামেন্ট।

বিসিবি বস আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন, লঙ্কা সফর হোক বা না হোক, দ্রুতই মাঠে গড়াবে ঘরোয়া ক্রিকেট। যেই কথা সেই কাজ। লঙ্কা সফর আলোর মুখ না দেখলেও ফ্লাড লাইটের আলোয় ভাসতে যাচ্ছে মিরপুর। রোববার উঠতে যাচ্ছে দিবা রাত্রির সেই টুর্নামেন্টের পর্দা।

লকডাউন থেকে মাঠে ফিরে লাল বলের অবস্থাটা দেখা হয়েছে দুই দিনের দুটো প্রস্তুতি ম্যাচে। এবার সাদা বলের পালা। তামিম-রিয়াদ-শান্তদের অধিনায়কত্বে নিজেদের মধ্য প্রস্তুতিমূলক টুর্নামেন্ট হলেও কোনো ছাড় দেয়ার জোঁ নেই। কারণ নির্বাচকদের তীক্ষ্ণ দৃষ্টি নিবদ্ধ থাকবে সবার ওপরে। নতুন মুখের সন্ধানে থাকবেন এই নির্বাচক।

বিসিবির নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন বলেন, ‘ফিটনেসের দিক বলেন আর দক্ষতার দিক বলেন মাঠে যদি খেলা দেখেন দেখবেন হাড্ডা হাড্ডি লড়াই চলছে। আমরা সন্তুষ্ট। প্রস্তুতি ম্যাচ হোক আর যাই হোক যখন কেউ ভালো করবে তারা কিন্তু আমাদের বিবেচনায় থাকবে। হয়তো এই ৩-৪ মাসে আমরা ভালো কোনো খেলোয়াড় পেয়ে যাব। ম্যাচগুলো আয়োজন করা হচ্ছে সেই জন্যই।’

করোনার কারণে ২০২০ সালটা কেটেছে বন্ধ্যাত্বে। তবে সব ঠিক থাকলে আগামী বছর মহা ব্যস্ততায় কাটবে টাইগারদের। টানা ম্যাচের কারণে কাঁধে চেপে বসতে পারে ইনজুরির জু জু। সেই ঝক্কি সামলাতে পুলে সদস্য বাড়ানোর পরিকল্পনায় বোর্ড।

সুমন বলেন, ‘পুলে খেলোয়াড়দের সংখ্যা বাড়ানোর একটা সুযোগ। এখন যেগুলো করছি তার উদ্দেশ্য সেটাই। প্রতিযোগিতা আরো বেশি তৈরি করা। যদি সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে পরবর্তী বছর ভালোভাবে শুরু করতে পারি তাহলে ভালো হয়। কারণ আগামী বছর আমাদের অনেক খেলা। অন্তত ৯ মাস ম্যাচ চলবে।’

১১ অক্টোবর মাহমুদুল্লাহ একাদশ আর নাজমুল একাদশের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে টুর্নামেন্ট। আসরের ফাইনাল হবে ২৩ অক্টোবর।সময় নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত