প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আহসান হাবিব: নারী নির্যাতন, আমার চোখ লজ্জায় নত হয়ে এসেছে

আহসান হাবিব: একজন নারীকে এরকম নৃশংসভাবে নির্যাতন করা যায়, আমার কল্পনাতেও ছিলো না। আমি বিমূঢ়, আমি হতবাক, বিস্মিত। আমার চোখ লজ্জায় নত হয়ে এসেছে, রি রি করে উঠেছে আমার সমস্ত মানবসত্তা। মানুষ হিসেবে আমাকে সবচেয়ে হীন এবং কদর্য মনে হচ্ছে। পৃথিবীর ইতিহাস, নারী নির্যাতনের ইতিহাস। কেননা নারী দুর্বল। দুর্বলের ওপর সবলের অত্যাচার। পৃথিবীর এমন কোনো পুরুষ নেই যে, নারীর ওপর অত্যাচার করেনি। পান থেকে চুন খসলেও না খসলেও পুরুষ নারীর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েছে। পিতা, স্বামী, ভাই, প্রেমিক, বন্ধু, সহযোদ্ধা এমনকি সন্তানও নারীকে নির্যাতন করেছে। শান্তির সময় যেমন, নারীর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েছে পুরুষ, যুদ্ধের সময়ও নারীই হয়েছে অত্যাচারের অন্যতম বলি।
নারীর ওপর সহিংসতার চূড়ান্ত রূপ হচ্ছে ধর্ষণ এবং তারপর মেরে ফেলা। ধর্ষণ হত্যার চেয়েও জঘন্য অপরাধ একজন নারীর জন্য। কারণ পুরুষ নারীর ওপর চাপিয়ে দিয়েছে সতীত্ব বলে আধিপত্যবাদী একটি মানদণ্ড।

নারীকে এই মানদণ্ডে পাস করতে হয়, ধর্ষণ এই পরীক্ষায় কালিমা লেপে দেয়। পুরুষ তাই এই কাজটাই করে, নারীকে কলঙ্কিত করার হীন মানসিকতা নিয়ে। কেন লিখছি এসব? আমি কী আমার যাবতীয় গ্লানি মোচন করতে চাইছি। আমি কি আমার হিংস্রতার জন্য লজ্জাবোধ থেকে বাঁচতে চাইছি? আমি কী প্রতিবাদ করতে না পারার ভীরুতাকে ঢাকতে চাইছি, হয়তো। এই দেশ যে আদিম এবং বর্বর যুগ অতিক্রম করতে পারেনি, নারীর ওপর তার নিকৃষ্ট সহিংসতাই তার প্রমাণ। আমি ওই বর্বর আদিম নৃশংস মানুষগুলোর প্রতি ধিক্কার জানাই, অবিলম্বে গ্রেপ্তার এবং দ্রুত বিচার দাবি করছি। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত