প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ট্রেনের কেবিন বুক করে গাঁজা পাচারের সময় যুবক আটক

ডেস্ক রিপোর্ট: ট্রেনের কেবিন বুক করে গাঁজা পাচার করার সময় ভৈরবে মায়নুল ইসলাম (৩২) নামে এক পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে ভৈরব রেলওয়ে থানা পুলিশ। এসময় তার সাথে থাকা একটি ট্রলি ব্যাগ তল্লাশি করে ১২ কেজি গাঁজা উদ্ধার করে পুলিশ।সময়টিভি

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিকেল সোয়া ৫টার সময় তাকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেন থেকে আটক করা হয়। মায়নুল ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া থানাধীন আমুদাবাদ গ্রামের ভুইয়াবড়ির মৃত তাহের মিয়ার ছেলে। মায়নুল ইতিপূর্বে ইরাকে একটি কোম্পানিতে শ্রমিকের কাজ করতো বলে জানা যায়।

ভৈরব রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ ফেরদাউস আহাম্মদ জানায়, সিলেট থেকে ঢাকাগামী জয়ন্তিকা ট্রেনে কর্তব্যরত কুলাউড়া রেলওয়ে থানার কনস্টবল নাঈম মিয়াসহ আরো দুজন ট্রেনে ডিউটি করছিল। ডিউটি করা কালিন সময়ে ট্রেনের ‘খ’ বগিতে প্রথম শ্রেণীর (কেবিন) এ একা দেখে মায়নুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। কোন উত্তর না দিয়ে পুলিশ দেখে মায়নুল ঘামতে শুরু করে। তখন কনস্টবল নাঈমের সন্দেহ হলে মায়নুলকে আটক করে। এ সময় ট্রেনটি ভৈরব স্টেশন অতিক্রম করছিল। ভৈরব স্টেশনের অদূরে ট্রেনটি ধীরগতি হলে কনস্টবল নাঈম মিয়া মায়নুল ইসলামকে নিয়ে ট্রেন থেকে নেমে ভৈরব রেলওয়ে থানায় খবর দেয়। থানায় এসে মায়নুলের সাথে থাকা একটি ট্রলি ব্যাগ তল্লাশি করে ১২ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় ভৈরব রেলওয়ে থানায় আটককৃত মায়নুলের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

আটককৃত মায়নুল বলেন, ইরাকে একটি কোম্পানিতে কাজ করতো। করোনার কিছুদিন আগে দেশে আসার তার আর ইরাকে যাওয়া হয়নি। সে আট হাজার টাকা দরে গাজা কিনে ঢাকায় নিয়ে পনের হাজার টাকা দরে বিক্রি করে থাকে। তার ধারণা ছিল ট্রেনে কেবিন বুক করে নিলে হয়তো পুলিশ ওই বগিতে যাবে না; তাই কেবিন বুক করা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত