প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ২ ট্রিলিয়নের বেশি অবৈধ অর্থ লেনদেনের অনুমতি দিয়েছে বিশ্বের বড় ব্যাংকগুলো

লিহান লিমা: [২] এই ফাঁস হওয়া নথিতে ব্যাংকগুলোর গোপন চুক্তি, অর্থ পাচার এবং আর্থিক কেলেঙ্কারি ও অপরাধের তথ্য উঠে এসেছে। মার্কিন কর্তৃপক্ষ ১৯৯৯ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত প্রায় আড়াই হাজারের বেশি তথ্য বিশ্লেষণ করেছে। ৮৮টি দেশের ১০৮টি সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে ব্লাজফিড নিউজ এই ফিনসেন ফাইলটি শেয়ার করে। বিবিসি/ডয়েচে ভেলে/ফ্রান্স২৪

[৩]এতে উঠে এসেছে বিশ্বখ্যাত এইচএসবিসি ব্যাংক জালিয়াতদের বিশ্বজুড়ে মিলিয়ন ডলারের চুরিকৃত অর্থ স্থানান্তরে অনুমতি দিয়েছে। মার্কিন তদন্তদল এই অর্থ সম্পর্কে জালিয়াতির প্রতিবেদন দেয়ার পরও ব্যাংকটি এই অনুুমোদন দিয়েছে।

[৪]মালিকানা জানা না থাকা সত্ত্বেও জে পি মরগান ব্যাংক একটি কোম্পানিকে ১ বিলিয়ন ডলারের বেশি অর্থ লন্ডনের শাখার মাধ্যমে স্থানান্তরের অনুমতি দিয়েছে। পরে ব্যাংকটি জানতে পারে কোম্পানির মালিক এফবিআইএর মোস্ট ওয়ান্টেড দশের একজন মবস্টার।

[৫]ফাঁস হওয়া নথিতে বলা হয়, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের ঘনিষ্ঠ সহযোগি তার বিরুদ্ধে পশ্চিমা দেশের আরোপি অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা এড়াতে লন্ডনের ব্লারক্লেস ব্যাংককে ব্যবহার করছেন। এর মধ্যে কিছু অর্থ শিল্পকর্ম কিনতে ব্যবহার হয়েছে।

[৬]সংযুক্ত আরব আমিরাতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক স্থানীয় ফার্মগুলোকে সতর্ক করতে ব্যর্থ হয়। যারা কি না ইরানকে নিষেধাজ্ঞা এড়িয়ে আর্থিক লেনদেন চালাতে সহযোগিতা করছিলো।

[৭]জার্মানির বিখ্যাত ডয়েচে ব্যাংকের মাধ্যমে মানি লন্ডারদের অবৈধ অর্থ সংঘবদ্ধ অপরাধ, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড এবং মাদকপাচারের জন্য লেনদেন হয়েছিলো।

[৮]প্রায় এক দশকেরও বেশি সময় ধরে জর্ডানের ব্যাংকে ক্লায়েন্টের অ্যাকাউন্টের অর্থ সন্ত্রাসবাদে অর্থায়নে ব্যবহৃত হওয়ার পর স্ট্যান্ডার্ড চাটার্ড তা আরব ব্যাংকে সরিয়ে নেয়।

[৯]এই ফাঁস হওয়া আর্থিক কেলেঙ্কারির প্রতিবেদনকে রাজনীতিবিদ, তারকা এবং ব্যবসায়িক নেতাদের আর্থিক লেনদেন সম্পর্কিত ২০১৭ সালের প্যারাডাইস পেপার, ধনীদের করফাঁকি দেয়ার প্রতিবেদন ২০১৬ সালের পানামা পেপার, দেশের ব্যাংকগুলোর গোপন আইন সম্পর্কিত ২০১৫ সালে সুইস লিক ও বড় বড় কোম্পানিগুলোর কর ফাঁকি সম্পর্কিত ২০১৪ সালের লুক্সলিকের সঙ্গে তুলনা করা হচ্ছে।

[১০]ফিনসেন বলছে, এই ফাঁস হওয়া তথ্য যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা এবং এই প্রতিবেদন তৈরি করা প্রতিষ্ঠান এবং ব্যক্তিদের নিরাপত্তায় প্রভাব ফেলতে পারে।

সর্বাধিক পঠিত