প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] যুবলীগের নেতারা কি চোর, প্রশ্ন মাহমুদুর রহমান মান্নার

রায়হান রাজীব: [২] নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক বলেছেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের ঘরের মধ্যে ঢুকে মাথায় কোপ দিয়েছে, এতে তার মাথার খুলি ভেঙে ভেতরে ঢুকে গেছে। তারপর গ্রেপ্তার হয়েছে যুবলীগের তিন জন। খুব বুদ্ধিমান তারা। এতো বুদ্ধি যে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে বলেছে ‘আমরা চুরি করতে ঢুকেছিলাম’। যুবলীগ কি চোর?

[৩] মান্না বলেন, করোনার মধ্যেও হৃদয় বিদারক পরিস্থিতি চলে। টেলিভিশনে ব্রিফ করা বন্ধ, বিকাল ৫টা বাজে প্রেস রিলিজ দিতে দিতে। সবাই ভালো করে পড়ে না। আগে সবাই জানতেন আজ কতজনের মৃত্যু হয়েছে, এখন বলতে পারেন না।

[৪] তিনি বলেন, যুবলীগের শিক্ষা হয়েছে যে, খুন করার পর ধরা পড়লে বলতে হবে যে ‘আমি চুরি করেছি’। ঘটনার পর বহিষ্কার করা হয়েছে, এই বহিষ্কার একেবারে লোক দেখানো।

[৫] মান্না বলেন, ছাত্রলীগের জেলা কমিটির সভাপতি ২ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করে দেয়। ওর যে বয়স সে বয়সে এই টাকা গুনে শেষ করতে পারবে? এক ওসি সাহেবের এত যত্ন! রিমান্ডে নেওয়ার সময় পরীক্ষা করা হয় মেডিক্যালি ফিট কিনা, রিমান্ড থেকে বেরিয়ে আসার পর আবার পরীক্ষা করা হয়। অথচ আমি ১৪ দিনের রিমান্ডে ছিলাম, আমাকে তো মেডিক্যাল টেস্ট করানো হলো না।

[৬] শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়াত সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমেদ স্মরণে স্মরণসভায় এসব কথা বলেন মান্না।

সর্বাধিক পঠিত