প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] অপরাধিদের কাছে নাগরিকত্ব বিক্রি করছে সাইপ্রাস

লিহান লিমা: [২] ফাঁস হওয়া সরকারী গোপন নথিতে দেখা গিয়েছে, অপরাধ, দুর্নীতি ও অর্থ কেলেঙ্কারির সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকা ৭০টি দেশের ডজনখানেক অপরাধী এবং রাজনৈতিক ব্যক্তিদের কাছে অর্থের বিনিময়ে ‘সোনালী পাসপোর্ট’ বিক্রি করছে বিক্রি করেছে সাইপ্রাস। আল জাজিরা।

[৩] কাতার ভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরার অনুসন্ধানী প্রতিবেদন ‘দ্য সাইপ্রাস পেপারস’ এ উঠে এসেছে, ২০১৭ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ১ হাজার ৪০০’র ও বেশি পাসপোর্টের আবেদনপত্র মঞ্জুর করেছে সাইপ্রাসের সরকার। এর বেশিরভাগ আবেদনই এসেছে রাশিয়া, চীন এবং ইউক্রেন থেকে। নাগরিকত্বের আবেদনের প্রেক্ষিতে এই বিপুল পরিমাণ সাড়া সাইপ্রাসের সরকারের নীতি সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছে।

[৪] ইউরোপের প্রত্যেক দেশে ভ্রমণ সুবিধা ও প্রবেশাধিকারের জন্য সাইপ্রাসের পাসপোর্ট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ইউরোপিয় ইউনিয়ন (ইইউ) এর সদস্য হওয়ায় সাইপ্রাসের পাসপোর্টধারীরা ইইউ’র ২৭টি দেশে ভ্রমণ, কাজ এবং ব্যাংকসহ সব ধরণের সুবিধা পান।

[৫] আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, কয়েকদিনের মধ্যেই তারা সাইপ্রাসের পাসপোর্ট পাওয়া ডজনখানেক ব্যক্তির নামের তালিকা প্রকাশ করবে যারা কি না দেশটির সরকারী নীতি অনুযায়ী পাসপোর্ট পাওয়ার যোগ্যতা রাখেন না।

[৬] সাইপ্রাসের পাসপোর্ট পেতে আবেদন করতে হলে আবেদনকারীকে ২৫ লাখ মার্কিন ডলার দেশটির অর্থনৈতিক খাতে বিনিয়োগ করতে হবে, সম্পত্তি ক্রয় করতে হবে এবং কোনো ধরণের অপরাধের রেকর্ড থাকা চলবে না।

[৭] ২০১৩ সাল থেকে শুরু হওয়া সাইপ্রাসের এই পাসপোর্ট প্রকল্পের সমালোচনা করে ইউরোপিয় ইউনিয়ন দেশটিকে এই প্রক্রিয়া বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে আসছে। এদিকে সাইপ্রাসের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আল জাজিরাকে বলেছেন, ‘নীতি লঙ্ঘন করে কোনো নাগরিকত্ব প্রদান করা হচ্ছে না।’ সম্পাদনা: ইকবাল খান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত