প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করলো ফেসবুক ইন্ডিয়া

সালেহ্ বিপ্লব: [২] ফেসবুক নিয়ে তুমুল উত্তেজনা চলছে ভারতের রাজনীতিতে। সম্প্রতি মার্কিন সংবাদ মাধ্যম ‘ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল’-এ প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন ঘিরে বিতর্কের সূত্রপাত। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ভারতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বিজেপি নেতাদের বা বিজেপি সমর্থিত সংগঠনের ঘৃণা এবং মুসলিম বিদ্বেষী মন্তব্য এড়িয়ে যায়। এনডিটিভি, সংবাদ প্রতিদিন

[৪] প্রতিবেদনে এও বলা হয়, বিজেপির বিদ্বেষমূলক মন্তব্যের বিরুদ্ধে কোনওরকম ব্যবস্থা নেয়া হয় না। উদাহরণ হিসেবে টাইগার রাজা সিংসহ একাধিক বিজেপি নেতার নাম উল্লেখ করা হয়, যারা নিয়মিত বিদ্বেষমূলক আচরণ করলেও তাঁদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

[৫] বিষয়টি নিয়ে পুরোদমে আক্রমণে নেমেছে কংগ্রেস। বিজেপির সঙ্গে ফেসবুকের আঁতাত রয়েছে বলে অভিযোগ তুলছে তারা। কংগ্রেসের দাবি, ২০১২ সাল থেকেই বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছে ফেসবুক ইন্ডিয়া।

[৬] ইস্যুটি গড়িয়েছে সংসদ পর্যন্ত। ভারতে কেন বিদ্বেষমূলক মন্তব্য ছড়াতে দেওয়া হলো, এর সম্পূর্ণ তদন্ত চেয়েছে কংগ্রেস। ফেসবুকের ভারতীয় শাখাকে আগামী ২ সেপ্টেম্বর তলব করেছে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।

[৭] এই প্রেক্ষাপটে ব্লগপোস্টে ফেসবুকের অবস্থান ব্যাখ্যা করেছেন ফেসবুক ইন্ডিয়ার ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক অজিত মোহন।

[৮] তিনি বলেন, ফেসবুক সবসময় খোলামেলা, স্বচ্ছ ও নির্দলীয় প্ল্যাটফরম। বিদ্বেষমূলক পোস্টের ব্যাপারে আমাদের পলিসি নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। অনেক প্রশ্ন উঠেছে। ফেসবুকে বিদ্বেষমূলক পোস্টের কোনও স্থান নেই।

[৯] অজিত জানান, ফেসবুকে সব কনটেন্টের ব্যাপারে কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ড অনুসরণ করা হয়। দল-মত-ধর্ম নির্বিশেষে সবার সঙ্গেই ফেসবুকের আচরণ এক।

সর্বাধিক পঠিত