প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফারজানা প্রিয়দর্শিনী আফরিন: মিনিমাম একাডেমিক জ্ঞান না রাখা লোকজন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে সাংবাদিকতার জগৎ

ফারজানা প্রিয়দর্শিনী আফরিন: [১] আমার এক সহকর্মী সিনিয়র রিপোর্টার একদিন বললো, ‘উগলি সিনেমাটা দেইখো, অসাধারণ মুভি’। আমি যেহেতু একটু অফ ট্র্যাকের মুভি-ডকু দেখতে পছন্দ করি তাই নামটা মাথায় রেখে দিয়েছিলাম। একদিন অফিসে কাজ শেষে ভাবলাম হাতে সময় আছে মুভিটা দেখে যাই। উনি বলেছিলেন, ইউটিউবে আছে। আমি Oogly, owgly, woogli ইত্যাদি নামে সার্চ দিয়ে না পেয়ে পাশের ডেস্কে বসা তাকে বললাম যে পাচ্ছি না মুভিটা। কোন দেশের মুভি-কোরিয়ান বা দক্ষিণী কিনা। তিনি উঠে এসে ইউটিউবে সার্চ দিলেন Ugly. আমার হার্ট এটাক হবার যোগাড় ততোক্ষণে। অপমানিত না হোন এমন টোনে তাকে বললাম ‘ভাই, এটা উগলি না, আগলি। আর এটা খুব কমন ইংরেজি। উনি পাত্তাই দিলেন না।

[২] এসাইনমেন্টে যাচ্ছি শ্যামলির দিকে। গাড়িতে পেছনের সিটে বসা ক্যামেরাম্যান চিৎকার করে ফোনে কথা বলছে, ‘কুত্তার বাচ্চা সার্জেন্টরে ফোনটা দে, আমি পিএম বিট করি, কত্ত বড় সাহস আমার গাড়ি আটকাইসে। ওরে কস নাই তুই আমার কথা। দে, ওরে ফোনটা দে।’
অপর পাশে সার্জেন্ট বা দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশ যেই হোক সে ফোনে কারো সঙ্গে কথা বলবে না। কিন্তু ক্যামেরাম্যান চেঁচামেচি করে গাড়িতে সবার কান ঝালাপালা করে ফেলছে। ওকে জিজ্ঞেস করে জানলাম তার গাড়ি (পিক আপ জাতীয় কিছু) তার চাচাতো ভাই ভাড়ার মাল নিয়ে কোথাও যাচ্ছিল, প্রয়োজনীয় কাগজ না পেয়ে পথে পুলিশ ধরেছে, চাবি নিয়ে নিয়েছে, প্রচুর টাকা দাবি করছে। যা জানলাম পুলিশ বেআইনিভাবে ধরেনি আর এজন্যই সে তার ‘পিএম বিটের’ পরিচয় ব্যবহার করে স্পট থেকেই ছাড়াতে চাইছে। ওদিকে যে পরিমাণ অর্থ ঘুষ চাইছে তা তার ভাইয়ের পকেটে নেই। যাই হোক, তাকে গাড়ির মধ্যে হইচই না করার নির্দেশ দিলাম। কিন্তু আমার মাথায় তখন কেবলই ঘুরছে একটা ফুলটাইম চাকরিজীবী ক্যামেরাম্যান ভাড়ায় দেবার মতো গাড়ি কেনার টাকা কোথায় পায়? তার বেতন খুব বেশি নয়।

[৩] বিজনেস বিটের স্টাফ রিপোর্টার, বেতন ৩০-এর নীচে। স্বামীর অফিসে বেতন হয় না দেড় বছর। যে বাসায় ভাড়া থাকে সেটির ভাড়া ৪০ হাজারের বেশি। বাকি খরচ তো আছেই। মেয়ে ব্যয়বহুল ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে পড়ে। দুইটি প্লট কেনার কিস্তির টাকা দেয় নিয়মিত। প্রতিবছর একাধিকবার বিদেশ ঘুরতে যায়। তার আয়ের সোর্স কী? কোনো পাশর্^ বিজনেস নেই। এগুলো তো প্রকাশ্য। অপ্রকাশ্য সম্পদের কথা জানি না। দুর্নীতি সকল জায়গায় ব্যাধির মতো ঢুকে গেছে। কেউ বাদ নেই। আর লেখাপড়া না জানা, মিনিমাম একাডেমিক জ্ঞান না রাখা লোকজন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে সাংবাদিকতার জগত। ‘সারা অঙ্গে ব্যথা, ওষুধ দেবো কোথা’? ফেসবুক থেকে

সর্বাধিক পঠিত