প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বগুড়ায় ভুল চিকিৎসায় নবজাতক শিশুর মৃত্যু

আবদুল ওহাব : [২] বগুড়ার শাজাহানপুরে ভুল চিকিৎসার কারনে এক নবজাতক শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। আর এ ঘটনায় গ্রাম্য ওই চিকিৎসক বাড়ি ছেড়ে দৌড়ে পালিয়েছেন। সোমবার ০১ জুন স্থানীয়রা জানান, রবিবার উপজেলার মালপিাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

[৩] ঘটনার বিবরণে নবজাতকের বাবা রাব্বি হোসেন ও নানা সবুজ মন্ডল জানান, শুক্রবার রাতে মালপিাড়া গ্রামে নিজ বাড়িতে নরমালেই রাব্বির স্ত্রী সুরমা বেগম একটি পুত্র সন্তান জন্ম দেয়। হৃষ্ট পুষ্ট সতেজ সুন্দর ও প্রথম বাচ্চা হওয়ায় আনন্দের বন্যা বয় পুরো পরিবারে। এমনিভাবে দুদিন অতিবাহিত হওয়ার পর রবিবার সকালে নবজাতক শিশুটির শরীরে জ্বর অনুভুত হলে রাব্বি পাশেই মালীপাড়া বাজারে ইয়াছিন মিয়া নামে এক গ্রাম্য ডাক্তারকে বাড়িতে ডেকে আনে। তিনি দেখার পর তার দোকান থেকে কয়েকটি ঔষধ দেয় নিয়মিত খাওয়ানোর জন্য। বেলা ২ টার দিকে ওই ঔষধ খাওয়ানো হলে নবজাতক শিশুটির প্রতিক্রিয়া শুরু হয় এবং কিছুক্ষন পরেই মৃত্যুবরণ করে। সাথে সাথে আকাশ বাতাস ভাড়ী হয়ে পুরো পরিবারে নেমে আসে শোকের ছায়া। কান্নায় ভেংগে পরেন শিশুটির মা-বাবা, নানা-নানী সহ প্রতিবেশী। ঘটনাটি জানাজানি হলে গ্রাম্য ওই চিকিৎসক দোকান বন্ধ করে দ্রুত পালিয়ে বাড়ি যায়। সংবাদ পেয়ে গণমাধ্যম কর্মীরা মালীপাড়াতেই গ্রাম্য চিকিৎসক ইয়াছিন আলীর বাড়ীতে ছুটে গেলে, টের পেয়ে সে বাড়ি থেকেও দৌড়ে পালিয়ে যায়।

[৪] পরে মোবাইল ফোনে তার নিকট এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি নবজাতকে চিকিৎসা করার কথা অস্বীকার করেন। আর চিকিৎসা শাস্ত্রে তার কোন সার্টিফিকেট আছে কি-না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি ডাক্তারী বা পল্লী চিকিৎসকের কোন ট্রেনিং করিনি। তবে অভিজ্ঞতা আছে। সেই সুবাদে বেশ কয়েক বছর ধরে মালীপাড়া বাজারে ঔষধের দোকান দিয়েছি এবং গ্রামে চিকিৎসা করে আসছি।
এ ঘটনায় শুধু নবজাকত শিশুটির পরিবার নয়, এলাকার লোকজন ওই গ্রাম্য হাতুড়ী চিকিৎসক ইয়াছিন আলীর দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবী করেছেন।

সর্বাধিক পঠিত