প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বাজেটে করোনার ক্ষতি মেটাতে কৃষিখাতে যন্ত্র ও তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারে গুরুত্বারোপ

প্রিয়াংকা : [২] নীতি নির্ধারকরা জানান, এক ইঞ্চি কৃষি জমিও অনাবাদী থাকবে না- সরকারের এমন ঘোষণার বাস্তবায়ণ চান তারা। ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীরা জানিয়েছেন, করোনার ক্ষতি থেকে কৃষি ও কুষককে সুরক্ষা দেয়ার চেষ্টাই থাকবে এবারের বাজেটে।

[৩] কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আমার মনে হয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যদি কৃষিতে একটা সুনির্দিষ্ট সমন্বয় করে ফসল, মৎস্য এবং প্রাণীসম্পদ সবগুলোকে একত্রিত করে স্পেসিফিক কিছু প্রজেক্ট করেন যেগুলো বাণিজ্যিক ভিত্তিতে অর্থ উপার্জনে সহযোগিতা করবে তাহলে তা ক্ষতি পূরণে বিশেষ সহায়ক হবে।

[৪] ড. দেবব্রত ভট্টাচার্য বলেন, মহামারী পরবর্তীকালে প্রকোট আকারে বেকারত্ব দেখা দিবে। বিশেষ করে যুব বেকারত্ব। শিক্ষিত যুবকদের আধুনিক কৃষিতে যোগ দানে উদ্বুদ্ধ করার বিষয়ঠির দিকে জোর দিতে হবে।

[৫] ড. হোসন জিল্লুর রহমান জানান, আমরা দুটি চালিকা শক্তির ওপর ভর করে আমরা গত ২০ থেকে ৩০ বছর চলেছি। তৈরি পোষাক খাত ও প্রবাসী আয়। এই চালক এখন ক্লান্ত। সুতরাং কৃষি হচ্ছে আগামীর প্রবৃদ্ধির অন্যতম চালক।

[৬] কৃষকদের দাবী, সরকার যেন ক্ষতিগ্রস্ত সরকার মৎস্য, পোল্ট্রি ও দুগ্ধ খামারীদের জন্য বিশেষ সহায়তা প্রদান করেন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত