প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সংখ্যালঘুদের দোষারোপ করা উচিত নয়’, দিল্লিকে ক্ষোভপ্রকাশ মার্কিন রাষ্ট্রদূতের

রাশিদ রিয়াজ : [২] ‘দোষারোপের খেলা বন্ধ করুন’। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তোপের মুখে ভারত সরকার। ভারতে করোনা সংক্রমণ বেশি ছড়াচ্ছে কোনও একটি নির্দিষ্ট ধর্মের সংখ্যালঘু মানুষদের জন্য, এই মনোভাব ত্যাগ করা উচিৎ বলে সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভপ্রকাশ করেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত। সংবাদ প্রতিদিন

[৩] মার্কিন রাষ্ট্রদূত স্যাম ব্রাউনব্যাক বৃহস্পতিবার জানান,”ভারতে কয়েকদিনে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ার জন্য কোনও একটি নির্দিষ্ট সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষকে সরকারের দায়ী করা উচিৎ নয়। আমরা জানি এই ভাইরাসের প্রকৃত উৎসস্থল ঠিক কোথায়? আমরা জানি এই ভাইরাস মহামারি। গোটা পৃথিবী এখন করোনা জ্বরে স্তব্ধ। সেখানে শুধুমাত্র একটি সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর দোষ চাপিয়ে যে খেলা চলছে তা বন্ধ হওয়া প্রয়োজন। ভারত সরকারের প্রয়োজন এই নোংরা খেলার বিরুদ্ধে একটা কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করা।”

[৪] দিল্লির নিজামুদ্দিনে ধর্মীয় সভার দুদিন পর জামাত সদস্যদের উদ্ধার করা হয়। তারপর থেকেই  ভারতে করোনা সংক্রমণে জামাত সদস্যদের নিয়ে প্রমাদ গুনতে শুরু করেন অনেকে। এই পরিস্থিতি দেখেই বিশেষ ক্ষোভপ্রকাশ করেন স্যাম ব্রাউনব্যাক। এমনকি নিজামুদ্দিকে করোনা সংক্রমণের ‘হটস্পট’ হিসেবে চিহ্নিত করায় ভারত সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত। কোনও রকম দোষারোপের খেলায় না গিয়ে ভারতের সকল ধর্মালম্বী মানুষদের জন্য তাঁর বার্তা,”সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নিজেদের মত করে ধর্মের আচরণ পালন করুন ও শান্তি বজায় রাখুন। চীন ও ইরানের মত দেশে বন্দিদের মুক্তিও দাবি জানাই।”

[৫] তবে করোনার জেরে দেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর কী প্রভাব পরতে পারে সেই বিষয়ে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলার সময় তিনি জানান ভারতের কোনও রাষ্ট্রনেতার সঙ্গে তাঁর এই ব্যাপারে কোনও কথা হয়নি। তবে শেষে মার্কিন রাষ্ট্রদূত এটাও জানান,”কোনও সংখ্যালঘু সম্প্রদায় দেশের ভালমন্দ না বুঝে যদি ধর্মের নামে জিহাদি আচরণ করে রাষ্ট্র তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। আমাদের দেশেও কেউ এরকম আচরণ করলে দেশ তাঁর বিরুদ্ধে যথোপযুক্ত পদক্ষেপ নেবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত