প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মানুষ বাঁচলে দেশ বাঁচবে আর দেশ বাঁচলে ব্যবসা বাঁচবে

তানভির এ মিশুক, ফেসবুক থেকে, এমনিতেই গুজব সর্বস্ব জাতি। যেকোনো গুজব খুব সহজেই খেয়ে ফেলি। গুজব ও ফেক নিউজ প্রশ্নে শুধু ধর্মান্ধ ও কুসংস্কারাছন্ন অর্ধ শিক্ষিত/অশিক্ষিত জনগোষ্ঠীই নয়, শিক্ষিত শহুরেরাও সমানভাবে একটিভ। ফেসবুক বুদ্ধিজীবীরা (করোনা সাইন্টিস্ট) কিছু সস্তা লাইক আর শেয়ারয়ের জন্য কি হলে-কি হবে, কি হয়েছে-কি হয়নি, সরকারের কি করার দরকার ছিল,সরকার কি ভূল করেছে এই গবেষনা আর গুজব প্রচারে ব্যাস্ত! আপনাদের সকল প্রয়োজন মেটাতে যারা দিনরাত কাজ করছেন, যেমন সরকারি ডাক্তার, স্থানীয় প্রশাসন, স্থানীয় সরকার, আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা, ডাক বিভাগের কর্মীরা, তারাও তো সরকার নাকি? যারা আপনার গ্যাস, বিদ্যুৎ, ইন্টারনেট সংযোগ চালু রাখছে তারাও তো সরকার নাকি? ফেসবুক বুদ্ধিজীবীদের কি অধিকার আছে সরকার অবদানকে ছোট করার?

আমি মনে করি যেকোনো সমস্যায় দুটি কাজ করা যায়। এক, সমস্যার সুযোগ নিয়ে দ্রুত অর্থ উপার্জন করা, এটা বেশ সহজ একটা কাজ। আর দুই, সমস্যার সমাধান নিয়ে দীর্ঘমেয়াদি কাজ করা, এতে যদি সাময়িক ক্ষতি হলে দীর্ঘমেয়াদে সবার লাভ হয়। পৃথিবীর ইতিহাসও তাই বলে। আর নিজে যেহেতু সহজ কাজ কম করছি জীবনে তাই জাতির এই দুস্সময়ে আমি এবং আমরা (নগদ) এমন কিছু কঠিন কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। বাংলাদেশ ব্যাংক ১৯ মার্চ একটা সার্কুলার দিয়ে বলেছে দিনে ১০০০ টাকা ক্যাশ আউট চার্জ বিহীন রাখতে হবে এবং আরো বলেছে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ও ফার্মাসি ক্ষেত্রে কোনো সেটেলমেন্ট চার্জ প্রযোজ্য হবে না। নিঃসন্দেহে সরকারের খুবই ভালো উদ্যোগ। কিন্তু কে শুনে সরকার বা রেগুলেটরের কথা? ডাক বিভাগের সেবা নগদ ছাড়া কেউ কি ১০০০ টাকা ক্যাশ আউট চার্জ ফ্রি করেছে ? নগদ ই ৩১২৬৭ টি নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ও ফার্মাসি ক্ষেত্রে সেটেলমেন্ট চার্জ শূন্য করে দিয়েছে। আর একটি কোম্পানি কি সেটেলমেন্ট চার্জ শুন্য করেছে? আর একটি রাষ্ট্রীয় সেবার কথা বলি, টেলিটক। সরকারি মোবাইল অপারেটর সবার আগে ৮ জিবি ইন্টারনেট খরচ নামিয়ে এনেছে ৮৯ টাকায়। সরকারি কেরু কোম্পানি কোটি কোটি টাকা লাভের এলকোহল না বানিয়ে সব চেয়ে কম দামে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বানিয়ে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। এই তথ্য গুলো আপনারা কতজন জানেন? আমি নিশ্চিত অনেকেই নন, কারণ সরকারতো কোটি কোটি টাকা প্রচারণা খরচ করছে না,সরকার তার সর্বশক্তি দিয়ে মানুষের সেবা নিশ্চিত করছে।

আমি নগদের প্রধান নির্বাহী হিসাবে সকল টিভি বিজ্ঞাপন বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছি এবং এই বিজ্ঞাপন বাজেট আমি সম্পূর্ণ বাজেট খরচ করতে বলেছি সাধারণ মানুষের খরচ কমানোর জন্য। আমি মনে করি মানুষ বাঁচলে দেশ বাঁচবে আর দেশ বাঁচলে ব্যবসা বাঁচবে। উন্নত বিশ্বের দেশগুলোতেও সরকারের পাশাপাশি সহায়তার হাত বাড়িতে দিচ্ছে বেসরকারি খাত ও এনজিওগুলো। আমি সকল মোবাইল অপারেটর এবং মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিসের প্রধান নির্বাহীকে অনুরোধ করবো এই দুর্যোগে আসুন আমরা মানুষের পাশে দাঁড়াই এবং আর কিছু না করতে পারলেও অন্তত আমাদের আগামী তিন মাসের বিজ্ঞাপনের বাজেট টা আমরা সেবার খরচ কমানোর জন্য ব্যায় করি। যাতে সাধরণ মানুষ একটু রেহাই পায়।

এই যে লড়াইয়ে আমরা আছি সেই লড়াইয়ে কোনো ‘আমরা’ ও ‘তারা’ নেই। এই লড়াই আমাদের সবার। আর পেশাদার বন্ধুরা, এখানে একা জেতার কোন সুযোগ নেই, আসুন এই সংকটময় পরিস্থিতির কাছে হার না মেনে সবাই মিলে জিতি, দেশকে জেতাই, দেশের মানুষকে জেতাই।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত