প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

করোনা কতোটা ভয়ংকর?

মুসা কলিম মুকুল: করোনার সুনির্দিষ্ট কোনো চিকিৎসা নেই। করোনাকে তাই ভয়ঙ্কর বলতেই হচ্ছে। কিন্তু প্রতিদিন দুনিয়াজুড়ে হাজার হাজার মানুষ মরে যায় চিকিৎসা না পেয়ে, আর প্রায় তিন মাসে করোনায় মানুষ মরেছে মাত্র হাজার তিনেক। দারিদ্র্যের কাছে, যুদ্ধের কাছে, হত্যা, ধর্ষণের কাছে করোনার ভয়াবহতা আসলে কিছুই নয়। তাহলে করোনা নিয়ে এতো আতঙ্ক কীসের? করোনার চেয়ে ভয়ংকর সব অসুখ-বিসুখের চিকিৎসা বড়লোকেরা, মানে সম্পত্তি দখলে থাকা লোকেরা সহজেই পেয়ে যায়, মামুলি করোনার চিকিৎসা নেই। ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রীও আক্রান্ত হয় এতে। গরিবের মতো তাকেও আল্লাহ ভরসা করে থাকতে হয়। এই হলো বিষয়। তা কতোটুকু ভরসা আল্লাহয়? বাকিটা আতঙ্ক মাস্ক, সাবান, টিস্যু পেপার, ওষুধপত্র কিনে এনে ঘরে স্তূপ করা আর আতঙ্কে আল্লাহ আল্লাহ করা। করোনা (কোভিড-১৯) রোগ শতকরা আটানব্বই শতাংশ ক্ষেত্রে সেরে যায়। গরিব মানুষ নিউমোনিয়া, টাইফয়েড, কলেরা রোগে এর চেয়েও অনেক বেশি মরে। অপুষ্টিতে মরে আরও অনেক বেশি।

করোনাও বিপজ্জনক বৈকি। মুখে স্রষ্টায় ভরসা রেখেও করোনার ভয়ে ইতালিতে সদা প্রভুর ঘর গির্জায় তালা ঝুলছে, কারবালায় জুম্মা বন্ধ, কাবাঘরে আপনি এখন আর ওমরাহ করতে পারবেন না, দরজা বন্ধ। তবে গরিবের জন্য করোনার ভয় যক্ষ্মার মতো অতোটা নয়। যক্ষ্মায় ভুগে আল্লাহ ভরসা করে কতো গরিব এমনিই মরে যায়, করোনা হলো গরিবের ‘ব্যাঙের সর্দি’। গরিবের আসল রোগ গরিবী, পৃথিবীর সবচেয়ে নোংরা ভাইরাস হলো সম্পত্তি। এই ভাইরাসকে যাহাই পবিত্র বলিয়া বর্ণনা করে তাহাই নোংরা। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত