প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনা ভাইরাস নিয়ে গবেষণা: দুর্যোগকালেও দূরে ঢাবি

ইত্তেফাক : [২] সারা বিশ্ব এখন উদ্বিগ্ন করোনা ভাইরাস নিয়ে। আক্রান্ত হচ্ছে একের পর এক দেশ। এমন বিপজ্জনক সময়ে উচ্চঝুঁকিতে রয়েছে বাংলাদেশ। অথচ বিষয়টি নিয়ে কোনো কথা বলছেন না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও গবেষকরা। যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় বিষয়টি নিয়ে শতাধিক গবেষণা প্রকাশ করলেও প্রাচ্যের অক্সফোর্ড হিসেবে পরিচিত এ বিশ্ববিদ্যালয়ের নেই কোনো গবেষণা এবং কর্মপ্রক্রিয়া। শুধু গবেষণা কিংবা কর্মপ্রক্রিয়া নয়, শিক্ষার্থীদের জন্য নেই কোনো ধরনের নির্দেশনা, প্রস্তুতি কিংবা সচেতনতা।

[৩] যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে জানানো হয়, বিশ্ববিদ্যালয়টির ওষুধ বিভাগ থেকে মানবিক পর্যন্ত ২০টিরও বেশি বিভাগ এসব গবেষণার সঙ্গে সম্পর্কিত। বিশ্ববিদ্যালয়টির জেনের ইনস্টিটিউট গত ফেব্রুয়ারির শুরু থেকেই গবেষণা শুরু করেছে। গত জানুয়ারি থেকে বিশ্ববিদ্যালয়টি এবং এর গবেষকরা শতাধিক গবেষণাপত্র প্রকাশ করেছে। প্রকাশিত গবেষণার কিছু সংখ্যাও সাইটে দেওয়া হয়েছে।

[৪] বিশ্ববিদ্যালয়টির জেনের ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক এবং কভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণের গবেষণায় নেতৃত্বদানকারী সারাহ গিলবার্টের বরাত দিয়ে ডেইলি মেইল জানায়, করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন এক মাসের মধ্যে আবিষ্কার হতে পারে। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি এ তথ্য জানানো হয়। এমন দুর্যোগকালীন সময়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং গবেষকরাও এ নিয়ে কাজ করছেন না।

[৫] বিশ্ববিদ্যালয়ে ফার্মেসি অনুষদ, বিজ্ঞান অনুষদের বায়োমেডিক্যাল ফিজিক্স অ্যান্ড টেকনোলজি বিভাগ, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ, জীব বিজ্ঞান অনুষদ, স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইনস্টিটিউটে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে করোনা ভাইরাস নিয়ে গবেষণার তথ্য পাওয়া যায়নি।

[৬] ভাইরাসটি সদ্য আবিষ্কৃত হওয়ায় কাজ হয়নি বলে জানিয়েছেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম। তিনি বলেন, করোনা আমাদের দেশে নতুন, তাই এ নিয়ে কোনো কাজ হয়নি। সাম্প্রতিককালে এ রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে, এখন কাজ হবে। তিনি মনে করেন, এখন জরুরি হচ্ছে সচেতনতা তৈরি করার।

[৭] ভ্যাকসিন তৈরি করার দায়িত্বে থাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি অনুষদ। এই অনুষদেরও নেই কোনো কাজ। শুধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নয়, সারাদেশের কোথাও এ নিয়ে গবেষণা হচ্ছে বলেও জানেন না অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এস এম আব্দুর রহমান। তবে অনুষদের পক্ষ থেকে একটি সেমিনারের আয়োজন করা হবে বলে জানান তিনি। এ ধরনের গবেষণার সক্ষমতা বিশ্ববিদ্যালয়ের নেই বলে জানান অনুজীব বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক সাবিতা রেজওয়ানা রহমান। গবেষণার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, বিষয়টি একেবারে নতুন। এটা নিয়ে গবেষণা হবে, একটি সেমিনার হওয়ার কথাও রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত