প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দীর্ঘ ১৮ বছর পর বাবার হত্যাকারীর মুখোমুখি হলো ছেলে

মশিউর অর্ণব: ইন্দোনেশিয়ার বালি দ্বীপে ২০০২ সালে ভয়াবহ বোমা হামলায় নিহত হন ২০২ জন৷ আল কায়দা সংশ্লিষ্ট স্থানীয় একটি জঙ্গিগোষ্ঠী হামলাটি চালায়৷ যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত জঙ্গিদের মধ্যে আলি ইমরানের সাথে সম্প্রতি মুখোমুখি দেখা করেছেন নিহতদের একজনের সন্তান গ্যারিল আর্নান্দা। ডয়েচে ভেলে

গ্যারিল আর্নান্দা বলেন, ভাই-বোনদের মধ্যে আমারই কেবল বাবার কথা সামান্য একটু মনে আছে। বাবা আমাকে খুব ভালোবাসতেন, প্রতি রোববার তিনি আমাকে ফুটবল মাঠে নিয়ে যেতেন। ওই জঙ্গির সাথে মুখোমুখি সাক্ষাতে গ্যারিল প্রশ্ন করেন, আমি শুনেছি আপনি ইসলামের নামে এরকম ন্যাক্কারজনক হামলা চালিয়েছিলেন। ইসলাম কোথায় আপনাকে বলেছে ধর্মের নামে মানুষ হত্যা করতে? আমার বন্ধুদেরকে তাদের বাবারা স্কুলে নিয়ে যায়, অথচ আপনার কারণে আমার ভাই-বোনের কখনো এই সৌভাগ্য হয়নি।

এমন প্রশ্নের জবাবে জঙ্গি আলি ইমরান বলেন, সব মানুষই ভুল করে। যদি কোনভাবে আমি তোমার সাথে অন্যায় করে থাকি, তার জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী। আমারও কষ্টের অনুভূতি হয়…সত্যিই।

গ্যারিল আর্নান্দার মাকে তিনি বলেন, আমারও সন্তান আছে। আমি বহু বছর আমার স্ত্রী ও সন্তানকে দেখিনি। আমারও ওদের কথা খুব মনে পরে। আপনার চেয়ে আমার অবস্থা অনেক বেশি খারাপ। আপনার সন্তানরা অন্তত আপনার সাথেই আছে, কিন্তু আমার সন্তানরা জানেই নাযে আমাকে কোথায় রাখা হয়েছে।

পিতাহারা সন্তান গ্যারিল আর্নান্দা সাংবাদিকদের বলেন, যখন আমি ওই হামলাকারীকে কাঁদতে দেখলাম, তখন আমি বুঝলাম সে আসলে ভালো মানুষ, তিনি অন্যের কষ্ট ও দুর্দশা অনুভব করতে জানেন। হয়তো সেসময় ভুল মানুষের দ্বারা তিনি প্রভাবিত হয়েছিলেন।

অথচ বোমা হামলা মামলার রায় ঘোষণার সময় জঙ্গি আলি ইমরান আদালতে উচ্চস্বরে বলেছিলেন, আজ আমি অনেক আনন্দিত, কারণ আমি জান্নাতে যাব।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত