প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঐতিহ্য ও আধুনিকতার সমন্বয়ে বিশ্বমানের ঢাকা গড়ার প্রত্যয়, ইশতেহারে ১৩ দফায় ১৪৪ প্রতিশ্রুতি ইশরাকের

শিমুল মাহমুদ: মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টা দিকে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মেয়র পদপ্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন তার নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন।

শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত পাঠ করেন, ওলামা দলের আহ্বায়ক হাফেজ মাওলানা শাহ মোহাম্মদ নেসারুল হক, এরপর ১১পৃষ্ঠার ইশতেহার পড়ে শোনান ইশরাক হোসেন।

ইশতেহারে ১৩টি দফায় ১৪৪ টি প্রতিশ্রুতি কথা জানান ইশরাক হোসেন। এরমধ্যে রয়েছে নাগরিক সেবা, নাগরিক বিনোদন, যানজট নিরসন ও যোগাযোগ ব্যবস্থার টেকসই উন্নয়ন, নাগরিক স্বাস্থ্যসেবা, শিক্ষাব্যবস্থা, পরিবেশ-উন্নয়ন বনায়ন ও বজ্য ব্যবস্থাপনা, তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার, সমাজসেবা কার্যক্রম, জননিরাপত্তা ব্যবস্থা, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা নৈতিকতার শক্তি পুনরুদ্ধার, গ্রন্থাগার ও জাদুঘর, নগর পরিকল্পনা ও প্রশাসন।

নগর উন্নায়নে ১০০ দিনের কর্মসূচির রয়েছে জানিয়ে, ইশরাক বলেন, সকল সেবাপ্রাপ্তির এবং সকল অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ সরাসরি কর্তৃপক্ষের কাছে অবহিত করার সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে মহানগরী ও আঞ্চলিক কার্যালয় চালু করা হবে। সেবা প্রাপ্তির চাহিদা ও অভিযোগ পাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কার্যকরী ব্যবস্থা নেয়া হবে। তাছাড়া যে কোনো নাগরিকের জন্য আমার ব্যক্তিগত ফোন সার্বক্ষণিক খুলা থাকবে। এছাড়া বছরে ২ বার নগর উন্নয়ন ও ব্যয় হিসেব তুলে ধরা হবে।

ইশতেহারে উল্লেখ করা অঙ্গীকার বাস্তবায়নে মেয়রের এখতিয়ার প্রসঙ্গে সাংবদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দুর্নীতির বিষয়ে জিরো টলারেন্স গ্রহণ করা হবে। অতীতে যে ভুলত্রুটি রয়েছে সেগুলো সংশোধনের জন্য আমরা পরিবর্তনের কথা বলছি।

বিএনপির এ মেয়র প্রার্থী আরও বলেন, পার্ক ও ব্যায়ামাগারে অত্যাধুনিক প্রাইমারি হেলথ চেকআপ সেন্টার স্থাপন করা হবে। প্রাতঃ ও সান্ধ্যকালীন ওয়ার্কারদের সুবিধার্থে পার্ক ও উন্মুক্ত স্থানগুলোতে অধিকতর পরিকল্পিত আধুনিক ওয়াকওয়ে নির্মাণ করা হবে। ফরমালিনমুক্ত খাদ্যসামগ্রীর নিশ্চিত করতে প্রতিটি বাজারে ভেজাল বীজ পরীক্ষাকেন্দ্র স্থাপন করা হবে।বিভিন্ন সম্ভাব্য জনসমাগমস্থলে ফুডকোড তৈরি করা হবে।

নগর পরিকল্পনা ও প্রশাসনিক পরিকল্পনা তুলে ধরে ইশরাক বলেন, নগরের সমস্যার গুরুত্ব অনুসারে স্বল্প মধ্যম এবং দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করে তা বাস্তবায়ন করা হবে। পরিকল্পিত নগর গড়ে তুলতে বিশিষ্ট নগর পরিকল্পনাবিদ স্বদেশে-বিদেশে কর্মরত বাংলাদেশি নগর পরিকল্পনাবিদদের পরামর্শ গ্রহণ করা হবে। নগরের সমস্যা চিহ্নিত করতে ও কার্যকর সমাধানে পরিকল্পনাবিদদের কাজের পরিধি বাড়ানো এবং অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা হবে। বিশেষজ্ঞ অর্থনীতিবিদদের মতামতের ভিত্তিতে ওয়ার্ড ভিত্তিক বাজেট প্রণয়ন করা হবে যাতে এ বিকেন্দ্রীকরণের সুফল দ্রুত তৃণমূল পর্যায়ে পৌঁছানো যায়। নগর ব্যবস্থাপনায় সুশাসন নিশ্চিত করে সেবার মানোন্নয়ন করা হবে।

তিনি বলেন, বিএনপি গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় বিশ্বাসী।নির্বাচনে আমাদের লক্ষ্য গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা। চলমান আন্দোলনের অংশ হিসেবে সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য ধানের শীষে ভোট দিন।

ইশরাক বলেন, আমি ঢাকার সন্তান। আপনাদেরই আপনজন। আপনাদের সুখ-দুখের সঙ্গে আমার জীবন ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে। এ ঐতিহাসিক নগরের সন্তান হিসেবে আমার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি হচ্ছে ঐতিহ্য ও আধুনিকতার সমন্বয়ে বিশ্বমানের আধুনিক ঢাকা গড়ে তোলা। এ লক্ষ্যে আমার নিজস্ব চিন্তা, চেতনা, ভাবনা ও প্রত্যাশার কাঠামো আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম। আপনাদের সহযোগিতা পেলে তা আরও বাস্তব প্রায়োগিক ও নাগরিকবান্ধব করে গড়ে তোলা সম্ভব হবে। আমি একান্তভাবে আশাকরি আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে আপনাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে আমাকে আপনাদের সেবা করার সুযোগ দেবেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত