প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্যাঙ্গালুরুতে বাংলাদেশি তকমা দিয়ে মুসলিম বস্তি গুঁড়িয়ে দিলো পুলিশ

সাইফুর রহমান : দক্ষিণ ভারতের ওই এলাকায় পৌর কর্তৃপক্ষের নির্দেশেই বস্তির প্রায় ২শ বাড়িঘর গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে। অ্যাক্টিভিস্টদের দাবি, পুলিশের উচ্ছেদ অভিযানে ঘরবাড়ি হারানো সবাই ভারতের নাগরিক এবং তাদের কাছে দেশের বৈধ পরিচয়পত্রও রয়েছে। সমাজকর্মীদের অভিযোগ, স্থানীয় বিজেপি বিধায়ক অরবিন্দ লিম্বাভালি তথাকথিত অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনবরত উস্কানি দিয়ে যাচ্ছেন। এর ফলেই বাংলাভাষী মুসলিমদের বিরুদ্ধে এই বর্বর অভিযান শুরু হয়েছে। দি হিন্দু, বিবিসি

স্থানীয় এনজিও কর্মী কলিমুল্লাহ জানান, শনিবার রাতে বেঙ্গালোরের বেলান্ডার শহরতলিসহ আরও বেশ কয়েকটি স্থানে ২৪ ঘন্টা ধরে দফায় দফায় অভিযান চলে। কুন্দনহালি, মোনেকালাসহ মোট চারটি স্থানে পুলিশ একসঙ্গে বুলডোজার নিয়ে হানা দিয়ে দুই ঘণ্টার মধ্যে ঘর খালি করে দেয়ার নির্দেশ দেয়। এরপর তারা ঘরে ঢুকে অকথ্য গালাগালি করে জিনিসপত্র তছনছ করে এবং এক পর্যায়ে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। বেঙ্গালোরের পুলিশ কমিশনার ভাস্কর রাও দাবি করেন, বস্তিবাসীরা সবাই বাংলাদেশি নাগরিক তা নিশ্চিত হয়েই তারা ব্যবস্থা নিয়েছেন।

আইনজীবী ও সমাজকর্মী দর্শনা মিত্র জানান, মূলত বেঙ্গালুরের অর্থনীতি বাড়ার সঙ্গে মারাথালিসহ বিভিন্ন এলাকায় অনেক নতুন নতুন ফ্ল্যাট এবং অফিস গড়ে উঠেছে। ফলে ইনফর্মাল সেক্টরে গৃহকর্মী, আবাসন শ্রমিক, স্কুলবাস চালকসহ বহু কাজের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এসব কাজের জন্যই আসাম, পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা থেকে লোকজন সেখানে যাচ্ছেন। কিন্তু বাংলাভাষী বলেই তাদের বাংলাদেশি বলে আখ্যায়িত করে উচ্ছেদ করা হচ্ছে। সম্পাদনা : তন্নীমা আক্তার

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত