প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তরুণ প্রজন্মকে সঙ্গে নিয়ে নেতৃত্বের প্রমাণ দিতে চান ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন

শিমুল মাহমুদ : সোমবার ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটির সামনে থেকে ১১তম দিনের প্রচার- প্রচারণা নামেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন।

নির্বাচনী এ প্রচারণা অংশ নিতে সকাল ১০ টা থেকেই লোক সমাগম ডি আর ইউ’র সামনে। এ সময় নেতাকর্মীদের খালেদা জিয়ার মুক্তির শ্লোগান দিতে দেখা যায়।
সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ইশরাক হোসেন বলেন, অত্যন্ত ভারাক্রান্ত হৃদয়ে স্মরণ করছি, আমাদের প্রিয় নেত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে। আজকে অন্যায়ভাবে কারাগারে আবদ্ধ করে রাখা হয়েছে।

বিএনপির এ মেয়র প্রার্থী বলেন, আজকে আমার বয়স নিয়ে তাচ্ছিল্য করার চেষ্টা করেন সরকারদলীয় নেতারা। তাই আমি তরুন ভোটারদের বলতে চাই, আপনারা যারা তরুণ প্রজন্ম রয়েছেন, আপনারা আমার পক্ষে ভোট দিবেন, আমার পক্ষে দাড়াবেন এবং এদেরকে ভুল প্রমাণিত করবেন। আমরা তরুণরা তাদের থেকে কম না। আমরাও পারি নেতৃত্ব দিতে। ইনশাআল্লাহ, আপনারা যদি আমার পাশে থাকেন, আমরা তাদেরকে ভুল প্রমাণিত করবো। দেখিয়ে দিব তরুণরাও পারে।

তিনি বলেন, ১৯৭২ সালে মুক্তিযুদ্ধের যখন সূচনা হয়েছিল, সর্বাধিক ছাত্ররাই ছিল তখন। করে কিন্তু জনগণের অধিকার লড়াই সংগ্রামের জীবন বাজি রেখে যুদ্ধের সূচনা করেছিল।

আমাদের ঢাকাকে তিলে তিলে ধ্বংস করে দেয়া হচ্ছে। এর থেকে যদি পরিত্রান চান, পরিবর্তন অবশ্যই আপনাদেরকে আনতে হবে। এবং সেটি সরকারদলীয় প্রার্থী দ্বারা সম্ভব নয়।

আজকে ১৩ বছর যাবত ক্ষমতাসীন সরকার দুই সিটি পরিচালিত করছে। কিন্তু তাদের অর্জনটা কি?আজকে সরকার দলীয় প্রার্থীরা বলছেন, তারা অচল ঢাকাতে সচল করবেন। তার মানে কি গত নয় বছরে তারা ঢাকাকে অচল করে ফেলেছিলেন। এটি জনগণের একটি প্রশ্ন।

ভোটারদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমি এই ঢাকার সন্তান, ঢাকাতে বড় হয়েছি। কিন্তু আমাদের এই ঢাকার পরিবেশ এমন ছিলনা। এ রকম ধুলোবালি, ময়লা আবর্জনার স্তুপের শহর আমরা পাইনি। আমাদের সময় গাছের পরিমাণ অনেক বেশি ছিল। বায়ুদূষণ ছিলনা, ধুলোবালিতে একাকার ছিলনা।

আজকে ঢাকার যে বিষাক্ত আবহাওয়া, বায়ু দূষণে বিশ্বের এক নম্বরে, প্রতিনিয়ত দূষিত বায়ু শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে আমাদের শরীরে প্রবেশ করছে। জরিপে দেখেছি, দূষিত বায়ু, ভারী ধাতু ও বিষাক্ত পদার্থ আমাদের শরীরে প্রতিনিয়ত প্রবেশ করছে। এর ফলে ক্যান্সার সহ অন্যান্য জটিল রোগের সমস্যা বেড়েই চলেছে।

তিনি বলেন, আমাকে যদি আপনারা ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করেন, আপনাদের ভোটের আন্দোলনকে ত্বরান্বিত করবো, আপনাদের অধিকারের লড়াইয়ে আমি সব সময় রাজপথে থাকবো। অন্যদিকে আমাদের এই প্রাণপ্রিয় নগরীকে পরিশোধিত নগরীতে পরিণত করার জন্য যা যা পদক্ষেপ নেওয়ার দরকার আমি সকল কিছুই করব।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, বিএনপি নেতা মীর সরাফত আলী সপু, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের সভাপতি রফিকুল আলম মজনু সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাওলা শাহিন প্রমুখ।

সর্বাধিক পঠিত