প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৩০ তারিখের ভোটে ধানের শীষ জিততে পারবে না, বললেন মান্না

শিমুল মাহমুদ : শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ- বিএসপিপি আয়োজিত গোলটেবিল আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, আগামী ৩০ তারিখের ভোট কোনো ভোট নয়। ওই তারিখের ধানের শীষ জিততে পারবেনা। ওরা জিততে দিবে না। যদি ভোট হত নৌকার খবর থাকতো না। সেইজন্যই সমস্ত বুদ্ধি-শুদ্ধি করেছেন তারা।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ফখরুল ভাইয়ের সাথে কর্মী হিসেবে কাজ করতে রাজি আছি কিন্তু পুতুপুতু করে কোনো রাজনীতি হবে না। আপনারা বলেন, ২০১৮ সালের ভোট চুরি করেছ,ডাকাতি করেছ, ছেড়ে দিয়েছি এবার কিন্তু ছাড়বো না। তাহলে দাঁড়াতে পারবেন। যদি দাঁড়াতে না পারেন তাহলে কোন কিছুই পারবেন না।

তিনি বলেন, আমি বিএনপি নেতাদের একটা বক্তৃতা অপছন্দ করি। তারা প্রায় বলেন, বেগম জিয়ার শরীরে অবস্থা এতো খারাপ, তিনি যে সুস্থ অবস্থায় বেরিয়ে আসতে পারবেন সেটা আল্লাহ ওপরে নির্ভর করে। তখন মানুষ মনে করেন বেগম জিয়াকে আর পাচ্ছি না। আপনাদের বলা উচিত এতো অসুস্থ তিনি যদি মরে আপনাদের খবর আছে।

ইভিএম প্রসঙ্গে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক বলেন, ইভিএম যে একটা গজব এটা আমরা সবাই বুঝি। মানুষ যা তৈরি করে তার নিজের জন্য তৈরি করে। নির্বাচন কমিশনকে পেছন থেকে কেউ ইভিএম আমদানি করিয়েছে। ওদের নিজেদের জন্য। ২০১৮ সালের ভোটের নামে যে ডাকাতি হয়েছে আর এখন যে ভোট হচ্ছে একই কায়দায় করার সুযোগ নাই। অতএব তারা ভিন্ন একটা পথ নিয়েছে। ওইভাবে যদি তারা ভোট করতে যেত তাহলে পুলিশকে ম্যানেজ করতে হয়, বিজিবি আর্মি যা যা আছে সবাইকে টাকা-পয়সা দিতে হয়, রাতের বেলা বিরিয়ানি খাওয়াতে হয়, পার্টি দিছেন হয়, এটা লজ্জার ব্যাপার। তাই তারা একটি মিশিন বের করেছে। এইটা দিয়ে তারা সমস্ত দায় মেশিনের উপরে দিবে। আপনি বলতে পারবেন না ওরা কেড়ে নিয়ে গেছে।

হাবিবুর রহমান সিরাজী উদ্বৃতি দিয়ে তিনি বলেন, আজকে অনেক নেতারা বলছেন ভোটের দিন লড়াই করবেন। কি লড়াই করবেন কার সাথে? আপনি কোন মেশিনে সামনে দাঁড়িয়ে আছেন। একটা করতে পারেন মেশিন ভেঙ্গে ফেলতে পারে তাছাড়া ভোটে জিতার কোনো সুযোগ নাই।

সুনির্দিষ্ট আন্দোলনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, যখন ঐক্যফ্রন্ট গঠন হয়েছিল তখন উনাকে বলেছিলাম আজও বলছি, যেহেতু বেগম জিয়া নাই, আপনাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নাই দল পরিচালনা করছে স্থায়ী কমিটি আর তার প্রতিনিধি ভয়েস দরকার। যার কথা শুনে মানুষ মনে করবে আমি জিততে পারবো আমি লড়াই করতে পারব।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত