প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মন্ত্রী হিসেবে শ ম রেজাউল করিমের এক বছর
এক বছরে রাজউকে হয়রানি কমেছে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স গণপূর্তে

আসাদুজ্জামান সম্রাট: শেখ হাসিনার নেতৃত্বে টানা তৃতীয়বারের সরকারের এক বছরে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষে (রাজউক) সেবাপ্রার্থীদের হয়রানি অনেকাংশে হ্রাস পেয়েছে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে ঘোষিত জিরো টলারেন্সনীতি বাস্তবায়ন করা হয়েছে গণপূর্ত অধিদপ্তরে। দুর্নীতির দায়ে একডজন কর্মকর্তা জেলে রয়েছেন। ৯২ জন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চলছে বিভাগীয় মামলা। গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী হিসেবে শ ম রেজাউল করিম দায়িত্ব গ্রহণের পর এক বছরে মন্ত্রণালয়ের কাজে গতিশীলতা বেড়েছে। মন্ত্রী জানিয়েছেন, অনিয়ম-দুর্নীতির বিরুদ্ধে মন্ত্রণালয়ের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রাজউকসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের আওতাধীন এলাকায় ভবন নির্মাণ অনুমোদনের জন্য পূর্বে ১৬টি সংস্থার অনাপত্তি গ্রহণ বা ১৬টি ধাপ অতিক্রম করতে হতো। তবে এখন সেবা সহজীকরণের জন্য ১৬টি ধাপ থেকে ১২টি ধাপ বাদ দিয়ে মাত্র চারটি ধাপে নামিয়ে আনা হয়েছে। সময়সীমা ১৬৫ দিনের পরিবর্তে ৫৩ দিন পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে। ভবনের নকশা অনুমোদনের সময়সীমা ৪৫ দিনের পরিবর্তে ২০ দিনে নামিয়ে আনা হয়েছে। এতে সেবাগ্রহীতাদের ভোগান্তি, ব্যয় ও সময় সাশ্রয় হচ্ছে। এ সময়ে প্রায় ১০৭ একর সরকারি সম্পত্তি অবৈধ দখলমুক্ত করে সরকারের আওতায় আনা হয়েছে।

এছাড়া স্বল্প ও মধ্যম আয়ের জনগোষ্ঠী, বস্তিতে বসবাসকারী ভাসমান ও ছিন্নমূল মানুষসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষের জন্য জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সারা দেশে প্লট উন্নয়ন ও ফ্ল্যাট নির্মাণ কাজও চলমান রয়েছে। রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসন ও সৌন্দর্যবর্ধন প্রকল্পের আওতায় ওয়াকওয়ে নির্মাণ, ড্রাইভওয়ে নির্মাণ এবং লেক পুনঃখনন কাজ সম্পন্ন হয়েছে। একইভাবে চট্টগ্রাম শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে ১৩টি খাল পুনঃখনন ও স¤প্রসারণ কাজ চলমান এবং ২৩টি খাল পুনঃখনন ও স¤প্রসারণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। রাজধানীর পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় পূর্বাচলে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ২ লাখ বৃক্ষরোপণ কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। এ পর্যন্ত ৫ হাজার বৃক্ষরোপণ করা হয়েছে।

এছাড়া জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের ২৬টি সেবা প্রদান পদ্ধতি সহজ করা ও সেবা প্রদানের সময়সীমা হ্রাস করা হয়েছে। সরকারি বাসা বরাদ্দে স্বচ্ছতা আনয়নকল্পে ৭৬৬টি বাসা অনলাইনে স্বয়ংক্রিয়ভাবে বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। ঢাকার বেইলি রোডে মন্ত্রীদের বাসভবন মিনিস্টার্স অ্যাপার্টমেন্ট-৩ নির্মাণ, ঢাকার ইস্কাটনে সিনিয়র সচিব, সচিব ও গ্রেড-১ কর্মকর্তাদের জন্য ১১৪টি ফ্ল্যাট, মিরপুর ৬নং সেকশনে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য ১ হাজার ৬৪টি ফ্ল্যাট, মিরপুর পাইকপাড়ায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য ৬০৮টি ফ্ল্যাট নির্মাণ, ঢাকার লালমাটিয়া নিউ কলোনিতে সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য ১৫৩টি ফ্ল্যাট নির্মাণ, ঢাকার লালমাটিয়া নিউ কলোনিতে সাতটি জরাজীর্ণ ভবনের স্থলে ১৩০টি আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণ এবং বেগুনবাড়ী খালসহ হাতিরঝিল এলাকার সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্পে ক্ষতিগ্রস্ত ভবন মালিকদের পুনর্বাসন ও বিক্রয়ের লক্ষ্যে অ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। ১৫-০৭-২০১৯ তারিখে প্রধানমন্ত্রী প্রকল্পগুলোর উদ্বোধন করেন।

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবাসন সংকট নিরসনে ঢাকার গুলশান, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর, আজিমপুর, মতিঝিল, মিরপুর ৬ নম্বর সেকশন, মালিবাগ, তেজগাঁও এবং নারায়ণগঞ্জের আলীগঞ্জে ১৩টি প্রকল্পের আওতায় ৬ হাজার ৯০৩টি ফ্ল্যাট নির্মাণ চলমান রয়েছে। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য চট্টগ্রাম ও নোয়াখালীতে ২ হাজার ৮৯৬টি ফ্ল্যাট নির্মাণের কাজ চলমান রয়েছে। গণপূর্ত অধিদপ্তর কর্তৃক ঢাকা মহানগরীর গুলশান, ধানমন্ডি ও মোহাম্মদপুরসহ বিভিন্ন এলাকার ২০টি পরিত্যক্ত বাড়িতে ৩৯৮টি ফ্ল্যাট এবং চট্টগ্রাম মহানগরীতে ৫১টি পরিত্যক্ত বাড়িতে মোট ১ হাজার ৮২৪টি ফ্ল্যাট ও ৬৪টি ডরমেটরি নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে।

জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ৪ হাজার ৬১১টি প্লট উন্নয়ন ও ২ হাজার ৫৫৯টি ফ্ল্যাট নির্মিত হয়েছে এবং ২ হাজার ২০০টি প্লট উন্নয়নের কাজ চলমান এবং ৭ হাজার ২৬১টি ফ্ল্যাট নির্মাণ চলছে। স্বল্প ও মধ্যম আয়ের জনগোষ্ঠীর আবাসন সমস্যার সমাধানে উত্তরা ১৮ নম্বর সেক্টরে ৭৯টি ১৬তলা ভবনে ৬ হাজার ৬৩৬টি ফ্ল্যাট নির্মাণের কাজ সমাপ্ত হয়েছে। উত্তরা আদর্শ আবাসিক শহর (তৃতীয় পর্ব) প্রকল্পের আওতায় রাজধানী ঢাকার মধ্যম ও নি¤œ আয়ের জনগোষ্ঠীর জন্য ৫৫০টি আবাসিক ও প্রাতিষ্ঠানিক প্লট হস্তান্তর করা হয়েছে। মধ্যম ও স্বল্প আয়ের জনগোষ্ঠীর জন্য আবাসিক প্লট হস্তান্তরের পাশাপাশি বিদ্যুৎ ও পানি সরবরাহ ব্যবস্থাসহ যাতায়াত ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নতি সাধন হয়েছে।

ঢাকা মহানগরীতে বস্তিতে বসবাসকারী ভাসমান ও ছিন্নমূল মানুষের জন্য স্বাস্থ্যকর আবাসনের লক্ষ্যে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের নিজস্ব অর্থায়নে মিরপুরের সেকশন-১১ এ ৫৩৩টি আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্পের কাজ এগিয়ে চলছে। পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পে প্রায় ৪ হাজারটি প্লট দখল হস্তান্তর করা হয়েছে।

পরিবেশবান্ধব, নিরাপদ ও ঝুঁকিমুক্ত ইমারত নির্মাণের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ন্যাশনাল বিল্ডিং কোড সংশোধনপূর্বক যুগোপযোগীকরণের কাজ সমাপ্ত হয়েছে। শিগগিরই ইঘইঈ গেজেট আকারে প্রকাশ হবে। এছাড়া ঢাকা ইমারত (নির্মাণ, উন্নয়ন, সংরক্ষণ ও অপসারণ) বিধিমালা ২০০৮ সংশোধন করে যুগোপযোগী করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে, যার খসড়া এরই মধ্যে চূড়ান্ত করা হয়েছে।

কেনিয়ার নাইরোবিতে জাতিসংঘের আঞ্চলিক হেড কোয়ার্টারে অনুষ্ঠিত প্রথম জাতিসংঘ হ্যাবিট্যাট এ্যাসেম্বলীতে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপির নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল অংশগ্রহণ করে। মন্ত্রী ওই অ্যাসেম্বলিতে বিশ্ব বসতি বিশেষত: রোহিঙ্গা আবাসন সংকট সংক্রান্ত বিষয়ে অত্যন্ত জোরালো বক্তব্য প্রদান করেন, যা আন্তর্জাতিক মহলে ভূয়সী প্রশংসিত হয়। রাজউক কর্তৃক হাতিরঝিল প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নের ফলে ঢাকা শহরের পূর্ব-পশ্চিম বরাবর যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন সাধনসহ ঢাকা শহরের যানজট নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (চউক) কর্তৃক ‘মুরাদপুর, ২নং গেইট ও জিইসি জংশনে ফ্লাইওভার নির্মাণ’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ৬ দশমিক ২ কিলোমিটার দীর্ঘ ফ্লাইওভারের নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়েছে। ১৫ দশমিক ২০ কিলোমিটার দীর্ঘ চট্টগ্রাম সিটি আউটার রিং রোড ও ৬ কিলোমিটার দীর্ঘ লুপ রোড নির্মাণ কাজ চলমান। চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক চট্টগ্রাম মহানগরীর যানজট সমস্যা নিরসনে লালখান বাজার থেকে শাহ আমানত বিমানবন্দর পর্যন্ত ১৬ দশমিক ৫০ কিলোমিটার দীর্ঘ এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। ‘খুলনা শিপইয়ার্ড রাস্তা প্রশস্তকরণ ও উন্নয়ন কাজ’ শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক কোর্ট হতে রাজশাহী বাইপাস রোড পর্যন্ত ২ দশমিক ২৫ কিলোমিটার সড়ক প্রশস্তকরণ কাজ সমাপ্ত হয়েছে। নাটোর রোড (রুয়েট) থেকে বাইপাস রোড পর্যন্ত চার লেনবিশিষ্ট ৫ কিলোমিটার রাস্তার প্রশস্তকরণ কাজ সমাপ্তির পর্যায়ে রয়েছে। খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের উদ্যোগে সাতক্ষীরা সড়ক ও সিটি বাইপাস সড়ককে সংযুক্ত করে সংযোগ সড়কসহ তিনটি লিংক রোড নির্মাণ করা হয়েছে, যা খুলনা শহরের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন এবং খুলনা শহরের যানজট হ্রাসকরণে ভূমিকা রাখছে।

বর্ষা মৌসুমে বিমানবন্দর, ক্যান্টনমেন্ট, বারিধারা ডিওএইচএস, নিকুঞ্জ এবং প্রকল্প এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে ড্যাপ অনুযায়ী খালের পানিধারণ ক্ষমতা বৃদ্ধিকরণ, জলাবদ্ধতা থেকে আশপাশের এলাকার উন্নয়ন এবং স্বাভাবিক পরিবেশ সংরক্ষণ করা এবং নতুন কালভার্ট ও তীর সংরক্ষণের মাধ্যমে বিদ্যমান অবকাঠামোর উন্নয়নে কুড়িল থেকে বালুনদী পর্যন্ত ৩০০ ফুট চওড়া কুড়িল-পূর্বাচল সংযোগ সড়কের উভয় পাশে ১৩ দশমিক ৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে ১০০ ফুট চওড়া খাল খনন প্রায় সমাপ্ত হয়েছে। একই সঙ্গে বোয়ালিয়া খাল এবং ডুমনী খাল আংশিক গভীরতায় খনন করা হয়েছে।

মন্ত্রণালয়াধীন জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক দীর্ঘ প্রায় ৪০ বছর পর ঢাকার ধামালকোট মৌজায় ১০ একর জমি অবৈধ দখলদার হতে উচ্ছেদপূর্বক ফ্ল্যাট নির্মাণ কার্যক্রম গ্রহণ করা, কুমিল্লা হাউজিং এস্টেট রাস্তার পাশের দশমিক ৫ একর জমি থেকে অবৈধ দখলদার উচ্ছেদপূর্বক রাস্তা নির্মাণের কাজ সম্পন্ন করা, দীর্ঘ ৩০ বছর পর যশোর হাউজিং এস্টেটে রাস্তা, পার্ক, খেলার মাঠ, সবুজ চত্বরসহ ৩২ একর জমি থেকে অবৈধ দখলদার উচ্ছেদপূর্বক উন্নয়নমূলক কার্যক্রম সম্পন্ন করা, দিনাজপুর হাউজিং এস্টেটে দীর্ঘ ৪০ বছর পর রাস্তা, পার্ক, খেলার মাঠ, সবুজ চত্বর, আবাসিক প্লটের ৩৫ একর জমি হতে অবৈধ দখলদার উচ্ছেদপূর্বক উন্নয়নমূলক কাজ করা, ঢাকার মিরপুরের ৮নং সেকশনে দুয়ারীপাড়া এলাকায় ‘ক’ ও ‘খ’ ব্লকে দীর্ঘ ৩৫ বছর পর ৩০ একর জমি উচ্ছেদ করে পূর্বে বরাদ্দকৃতদের মধ্যে প্লট সরেজমিন বুঝিয়ে দেওয়ার কার্যক্রম গ্রহণ এবং নোয়াখালীর মাইজদী হাউজিং এস্টেটে প্রায় ১ একর জমি থেকে অবৈধ দখলদার উচ্ছেদপূর্বক উন্নয়ন কার্যক্রম চালু করা হয়েছে।

রাজউক কর্তৃক পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পে পানি সরবরাহের লক্ষ্যে রাজউক এবং ইউনাইটেড ডেলকট লিমিটেডের মধ্যে ১১-১১-২০১৯ তারিখে পিপিপি চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে মন্ত্রণালয়ের আওতায় জিওবি অর্থায়নে সাতটি ও নিজেদের অর্থায়নে চারটিসহ মোট ১১টি প্রকল্প সমাপ্ত হয়েছে। এর মধ্যে আবাসন, ফ্লাইওভার নির্মাণ, রাস্তা স¤প্রসারণ, গবেষণা কার্যক্রম ও সৌন্দর্যবর্ধন সংক্রান্ত প্রকল্প রয়েছে। সংবিধানের ১৬ অনুচ্ছেদে নগর ও গ্রামাঞ্চলের জীবনযাত্রার মানের বৈষম্য ক্রমাগত দূর করার জন্য রাষ্ট্র কর্তৃক কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলা হয়েছে। সে আলোকে আওয়ামী লীগের অন্যতম নির্বাচনি ইশতেহার ‘আমার গ্রাম-আমার শহর’ অনুযায়ী শহরের সব নাগরিক সুবিধা প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে কাজ করছে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়।

রাজধানীর বনানীর এফআর টাওয়ারে অগ্নিদুর্ঘটনার পর তাৎক্ষণিকভাবে বহতল ভবনের ত্রুটি-বিচ্যুতি অনুসন্ধানের জন্য গঠিত রাজউকের ২৪টি দল ১ হাজার ৮১৮ বহুতল ভবন পরিদর্শন করে। এর মধ্যে পরিদর্শন দল ১ হাজার ৪৭টি ভবনে বিভিন্ন ধরনের ব্যত্যয় এবং নকশাবিহীন বা নকশা দেখাতে ব্যর্থ ৪৭৮টি ভবন খুঁজে পায়। পরিদর্শনে প্রাপ্ত নির্মাণ ত্রুটি-বিচ্যুতিসম্পন্ন ভবন মালিকদের রাজউক কর্তৃক নোটিশ প্রদানসহ পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। গাজীপুর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইন, ২০১৯ মন্ত্রিসভা বৈঠকে চূড়ান্ত অনুমোদন পেয়েছে। পায়রা কুয়াকাটা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইন, ২০১৯ এর খসড়া আন্তঃমন্ত্রণালয় সভার মাধ্যমে চূড়ান্ত করা হয়েছে। শিগগিরই মন্ত্রিসভা বৈঠকে নীতিগত অনুমোদনের জন্য প্রেরণ করা হবে। হাতিরঝিল লেকের দূষিত পানি পরিশোধনের লক্ষ্যে প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।নির্ধারিত সময়ের সাত মাস আগেই ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনের নবসজ্জা ও আধুনিকায়ন কাজ সম্পন্ন হয়েছে এবং ৯ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক এটি উদ্বোধন করা হয়েছে।

সর্বাধিক পঠিত