প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আজ পর্দা উঠবে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের

ইয়াসিন আরাফাত : দেখতে দেখতে চলে এসেছে কাঙ্ক্ষিত দিনটি। আজ বিকাল থেকে উৎসব আনন্দে মাতবে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়াম। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে এবারের বিপিএলের নাম দেয়া হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’। বঙ্গবন্ধুর নাম জড়িয়েছে বলেই এবারের বিপিএলে সেই অর্থে কোনো টাইটেল স্পন্সর নেই। তবে প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে যুক্ত হয়েছে আকাশ ডিটিএইচ। আর আজকের বর্ণাঢ্য উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষক বসুন্ধরা গ্রুপ। প্রায় ৪ ঘণ্টার এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঘটবে দেশি-বিদেশি তারকাদের মেলা।

আজ বিকাল ৪টা ৩০ মিনিট থেকে শুরু হবে অনুষ্ঠান। এর আগে ২টা ৩০ মিনিট থেকে দর্শকের জন্য গেট খোলা হবে। আর ৫টা ৩০ মিনিটে গেট বন্ধ করে দেয়া হবে। সন্ধ্যা ৭টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেরে বাংলার গ্র্যান্ড স্ট্যান্ডের প্রেসিডেন্ট বক্সে বসে বাটন টিপে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন টুর্নামেন্টের। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করারও ২ ঘন্টা আগে থেকে বিকেল ৫ টায় শুরু হয়ে যাবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সে সময়টায় মূলত স্টেজ মাতাবেন দেশি শিল্পীরা। বিকেল ৫ টা ২৫ মিনিটে মঞ্চে আসবেন রকস্টার মইদুল ইসলাম খান । তার ১০ মিনিট পর সঙ্গীত পরিবেশন করবেন রেশমি মীর্জা। সন্ধ্যা ৬ টায় মঞ্চে আসবেন দেশের ব্যান্ড সঙ্গীত জগতের জনপ্রিয় শিল্পী জেমস। জেমস শেষ করার পর সন্ধ্যা ৬ টা ৪০ মিনিটে শুরু হবে বাংলাদেশের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী মমতাজ বেগমের একক পরিবেশনা। সন্ধ্যা ৭ টা ২০-এর ভেতরে শেরে বাংলায় আগমন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মাঠে এসে প্রধানমন্ত্রী শেরে বাংলার গ্র্যান্ডস্ট্যান্ডে অবস্থান নেবেন। উপস্থিত হবার ১০ মিনিটের ভেতর তিনি বিপিএলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনও ঘোষণা করবেন। প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনী ঘোষণার পর পরই শুরু হবে জমকালো আতশবাজি। ১০ মিনিট ধরে চলবে সে নানা রঙের খেলা। সন্ধ্যা পৌনে ৮ টায় মঞ্চে আসবেন ভারতীয় সংগীতশিল্পী সনু নিগাম। তারপর রাত ৮ টা ৩৫ মিনিটে ‘লেজার বিম শো’। এরপর রাত ৮ টা ৫৫ মিনিটে মঞ্চে ওঠার কথা ভারতের আরেক নামি কন্ঠশিল্পী কৈলাস খেরের। রাত ৯ টা ৩৫ মিনিটে ২৬ মিনিটের জন্য মঞ্চে উঠবেন বলিউডের জনপ্রিয় নায়িকা ক্যাটরিনা কাইফ। আর রাত ১০ টায় মঞ্চ মাতাতে আসবেন বলিউড সুপারস্টার সালমান খান। দুটি একক অনুষ্ঠান করার পর রাত ১১ টা ২০ মিনিটে সালমান খান আর ক্যাটরিনা কাইফের একটি যৌথ নৃত্যর কথা বলা আছে অনুষ্ঠানসূচিতে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অবশ্য বিপিএলে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর জন্য প্যারেড জাতীয় কিছু নেই। ‘অনুষ্ঠানের জন্য খেলোয়াড়দের নিমন্ত্রণ করা হয়েছে। তবে তাদের জন্য অনুষ্ঠানে বিশেষ কোনো সেগমেন্ট নেই। বিশ্বের অন্যান্য টুর্নামেন্টেও এমনটাই হয়। এ তথ্য জানিয়েছেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান শেখ সোহেল।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠান উপলক্ষে গত বেশ কয়েদিন ধরেই শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে চলছে প্রস্তুতি। মঞ্চ নির্মাণের কাজ শেষ। পুরো স্টেডিয়ামে ব্যাক ড্রপসহ ১০ টি বড়সড় জায়ান্ট স্কিন বসানো হয়েছে। যাতে করে স্টেডিয়ামে উপস্থিত সবাই নিজ নিজ আসন থেকে ওই জায়ান্ট স্কিনে ভালোভাবে দেখতে পারেন আকর্ষণীয় ও জাকজমকপূর্ণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

এই অনুষ্ঠান খুব বেশি লোক মাঠে উপস্থিত থেকে দেখতে পারবেন না। বিশাল মঞ্চ তৈরি করায় গ্যালারির একটা অংশ পুরোটা আড়াল হয়ে গেছে। ফলে গ্যালারিতে দর্শক বসানো হচ্ছে না। দর্শক বসবেন মূলত মাঠে দুই স্তরে। ১০ হাজার ও ৫ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়েছে ‘অন গ্রাউন্ড’ নামের সেই টিকিট। এ ছাড়া ক্লাব হাউজ ও গ্র্যান্ড স্ট্যান্ডেও থাকবেন কিছু দর্শক।

মাছরাঙ্গা টেলিভিশন, জিটিভি আর নিউজ ২৪ বিকেল থেকে রাত সাড়ে ১১ টা পর্যন্ত বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার করবে। এর বাইরে রাজধানী ঢাকার বেশ ক’টি জায়গায় এবং বন্দর নগরী চট্টগ্রাম ও সিলেটে জায়ান্ট স্ক্রিনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখানোর কথা বলা হয়েছে। সব মিলিয়ে প্রস্তুতির অভাব নেই। এখন কেবল বাদ্য বেজে ওঠার অপেক্ষা। সম্পাদনা : মাজহারুল ইসলাম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত