প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কবিগুরুর ১৫৮তম জন্ম জয়ন্তী আজ

আহমেদ শাহেদ : ‘তোমার প্রকাশ হোক কুহেলিকা করি উদ্ঘাটন/সূর্যের মতন।/রিক্ততার বক্ষ ভেদি আপনারে করো উন্মোচন।/উদয়দিগন্তে ওই শুভ্র শঙ্খ বাজে/মোর চিত্তমাঝে/চির-নূতনেরে দিল ডাক/পঁচিশে বৈশাখ।’

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ‘হে নূতন’ গানে চির নতুনের মধ্যে দিয়ে তার নিজের পৃথিবীকে আগমনের শুভক্ষণকে তুলে ধরেছিলেন। আজ পঁচিশে বৈশাখ। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৮তম জয়ন্তী।

বাঙলির মানসপটে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সদাই বিরাজমান। তিনি আমাদের অহংকার। বাঙালির জীবনের যত ভাবনা, বৈচিত্র্য আছে, তার পুরোটাই লেখনী, সুর আর কাব্যে তুলে ধরেছেন কবিগুরু।

তার সাহিত্যকর্ম, সঙ্গীত, জীবনদর্শন, মানবতা, ভাবনা- সবকিছুই সত্যিকারের বাঙালি হতে অনুপ্রেরণা দেয়। কবিগুরুর ১৫৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাণী দিয়েছেন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্ম ১২৬৮ বঙ্গাব্দের আজকের দিনে। মা সারদাসুন্দরী দেবী এবং বাবা বিখ্যাত জমিদার ও ব্রাহ্ম ধর্মগুরু দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর। ১৮৭৫ সালে মাত্র ১৪ বছর বয়সে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মাতৃবিয়োগ ঘটে।

পিতা দেবেন্দ্রনাথ দেশ ভ্রমণের নেশায় বছরের অধিকাংশ সময় কলকাতার বাইরে অতিবাহিত করতেন। তাই ধনাঢ্য পরিবারের সন্তান হয়েও রবীন্দ্রনাথের ছেলেবেলা কেটেছিল ভৃত্যদের অনুশাসনে।

শৈশবে তিনি কলকাতার ওরিয়েন্টাল সেমিনারি, নরম্যাল স্কুল, বেঙ্গল একাডেমি ও সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজিয়েট স্কুলে পড়াশোনা করেন। ছেলেবেলায় জোড়াসাঁকোর বাড়িতে অথবা বোলপুর ও পানিহাটির বাগানবাড়িতে প্রাকৃতিক পরিবেশের মধ্যে ঘুরে বেড়াতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করতেন।

৮ বছর বয়সে তিনি কবিতা লেখা শুরু করেন। ১৮৭৮ সালে ব্যারিস্টারি পড়ার উদ্দেশে তিনি ইংল্যান্ড যান। সেখানে তিনি ব্রাইটনের একটি পাবলিক স্কুলে ভর্তি হন। ১৮৭৯ সালে ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনে আইনবিদ্যা নিয়ে পড়াশোনা শুরু করেন।

প্রায় দেড় বছর ইংল্যান্ডে কাটিয়ে ১৮৮০ সালে কোনো ডিগ্রি না নিয়ে দেশে ফিরে আসেন। ১৮৮৩ সালের ভবতারিণীর সঙ্গে তিনি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। বিবাহিত জীবনে ভবতারিণীর নামকরণ হয়েছিল মৃণালিনী দেবী।

এর মধ্যেই চলতে থাকে তার সাহিত্যচর্চা। ১৮৯১ সাল থেকে পিতার আদেশে নদিয়া, পাবনা, রাজশাহী ও উড়িষ্যার জমিদারি তদারকি শুরু করেন রবীন্দ্রনাথ। কুষ্টিয়ার শিলাইদহের কুঠিবাড়িতে তিনি দীর্ঘ সময় অতিবাহিত করেন।

১৯০১ সালে রবীন্দ্রনাথ সপরিবারে শিলাইদহ ছেড়ে চলে আসেন বীরভূম জেলার বোলপুর শহরের উপকণ্ঠে শান্তিনিকেতনে। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর পৌঁছে দিয়েছেন বিকাশের চূড়ান্ত সোপানে। বাংলা ভাষার সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক রবীন্দ্রনাথকে গুরুদেব, কবিগুরু ও বিশ্বকবি অভিধায় ভূষিত করা হয়। রবীন্দ্রনাথের ৫২টি কাব্যগ্রন্থ, ৩৮টি নাটক, ১৩টি উপন্যাস ও ৩৬টি প্রবন্ধ ও অন্যান্য গদ্যসংকলন তার জীবদ্দশায় ও মৃত্যুর পর প্রকাশিত হয়েছে।

কর্মসূচি : আজ উদ্যাপিত হবে বিশ্বকবির ১৫৮তম জন্মজয়ন্তী। এরই মধ্যে সঙ্গীতাসর, প্রদর্শনীসহ নানা আয়োজনে কবিগুরুর প্রতি জানানো হয়েছে শ্রদ্ধাঞ্জলি। কবির জন্মদিনের জাতীয় পর্যায়ের আয়োজন আজ নৃত্য-গীতের সাংস্কৃতিক পরিবেশনার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে চিত্রকর্ম প্রদর্শনী। এবার রবি ঠাকুরের জন্মবার্ষিকী উদ্যাপনের প্রতিপাদ্য ‘মানবিক বিশ্ব বিনির্মাণে রবীন্দ্রনাথ’।

কবির জন্মবার্ষিকীর মূল অনুষ্ঠান হচ্ছে রাজধানী ঢাকায়। শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে আজ বিকাল ৩টায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেবেন সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেন রিমি। বিশেষ বক্তৃতা দেবেন জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান এবং রবীন্দ্রসঙ্গীতশিল্পী, লেখক, গবেষক ও ছায়ানটের সভাপতি সানজীদা খাতুন।

রবীন্দ্র স্মারক বক্তৃতা দেবেন মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুল হক। স্বাগত বক্তব্য দেবেন সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল। উদ্বোধন অনুষ্ঠানের পর থাকবে নৃত্য-গীত ও কবিতায় সজ্জিত বৈচিত্র্যময় সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। পরে শিল্পকলা একাডেমিতে তিন দিনব্যাপী কবির চিত্রকর্ম প্রদর্শনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে।

বাংলা একাডেমি আজ বেলা ১১টায় একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে একক বক্তৃতা, রবীন্দ্র পুরস্কার-২০১৯ প্রদান এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ দেবেন একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী। ‘রবীন্দ্রনাথের বাংলাদেশ : শিক্ষা ও স্বদেশ ভাবনা’ শীর্ষক বক্তৃতা দেবেন অধ্যাপক আনোয়ারুল করীম। সভাপতিত্ব করবেন বাংলা একাডেমির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান।

ঢাকার বাইরে কবিগুরুর স্মৃতিবিজড়িত কুষ্টিয়ার শিলাইদহ, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর, নওগাঁর পতিসর এবং খুলনার দক্ষিণডিহি ও পিঠাভোগে স্থানীয় প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় উদ্যাপিত হবে কবির জন্মদিন। এ উপলক্ষে রবীন্দ্রমেলা, আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করবে স্থানীয় প্রশাসন।

শিলাইদহ কুঠিবাড়িতে তিন দিনের উৎসব : কুষ্টিয়া প্রতিনিধি জানান, কবিগুরুর ১৫৮তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে কবির স্মৃতিধন্য কুষ্টিয়ার শিলাইদহ কুঠিবাড়িতে আয়োজন করা হয়েছে তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার। আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি থাকছে গ্রামীণ মেলার আয়োজন। উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ।

জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন বলেন, বিশ্বকবির জন্মজয়ন্তীতে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় তিন দিনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে জেলা প্রশাসন। তবে রমজান থাকায় এবার অনুষ্ঠান সন্ধার আগেই শেষ করা হবে।

এদিকে নওগাঁ প্রতিনিধি জানান, জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আত্রাই উপজেলার নাগর নদীর তীরঘেঁষে গড়ে ওঠা কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত পতিসর কাছারিবাড়িতে বইছে সাজ সাজ রব। প্রতিবছরই এখানে বসে মানুষের মিলনমেলা। দূর-দূরান্ত থেকে কবির ভক্তরা ছুটে আসেন পতিসর কুঠিবাড়ি প্রাঙ্গণে। আজ জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত