প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পিসিবি ও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের দেখানো পথে হাঁটবে

স্পোর্টস ডেস্ক : গত মাসে পাকিস্তানের সাবেক পেসার তানভীর আহমেদ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে (পিসিবি) নিয়ে বোমা ফাটিয়েছিলেন। ব্যক্তিগত মন্তব্য করতে গিয়ে তিনি বলেছিলেন, দেশের ক্রিকেট বোর্ডের অবস্থা এমন যে আর কদিন পর ভালোমানের কোনো ক্রিকেটার পাওয়া যাবে না।

এবার পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) হাঁটছে ভারতীয় ক্রিকেটে বোর্ডের দেখানো পথে। পিসিবি চাইছে দেশটির অনূর্ধ্ব-১৯ এবং ‘এ’ টিমের কোচ হিসেবে হাই-প্রোফাইল সাবেক কোনো ক্রিকেটারকে। ভারতের সাবেক তারকা রাহুল দ্রাবিড় এই ভূমিকায় বেশ সফল। দ্রাবিড়কে অনুপ্রেরণা ধরে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এমন সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে।

এরই মধ্যে সাবেক ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলেছে পিসিবি। তাতে পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ এবং ‘এ’ টিমের কোচ হিসেবে দেখা মিলতে পারে সাবেক অধিনায়ক ইউনুস খানের। শুধু কোচ নয়, ম্যানেজার হিসেবেও পিসিবি সাবেক কোনো ক্রিকেটারকে নিয়োগ দিতে পারে বলে জানাচ্ছে দেশটির সংবাদমাধ্যম।

গত বছর অবসর নেওয়ার আগে ইউনুস খান জানিয়েছিলেন, বোর্ড ডাকলে যেকোনো পজিশনেই তিনি কাজ করতে ইচ্ছুক, বিশেষ করে জুনিয়র দলকে নিয়ে। পাকিস্তানের সর্বোচ্চ টেস্ট রানের মালিকের দিকেই ঝুঁকতে পারে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। জুনিয়র লেভেলকে আরও আগ বাড়িয়ে নিতে ইউনুস খানকে পুরোপুরি স্বাধীনতা দেওয়া হবে বলেও একাধিক বোর্ড সূত্র জানিয়েছে।

পিসিবির চেয়ারম্যান এহসান মানি জানিয়েছেন, ‘অস্ট্রেলিয়া, ভারত পারলে আমরা কেন পারবো না। অস্ট্রেলিয়া তাদের সাবেক খেলোয়াড়দের নিয়ে অনেক উপকার পেয়েছে। যেমন রডনি মার্শ, অ্যালান বোর্ডার, রিকি পন্টিংরা অবসরের পর জাতীয় দল, অনূর্ধ্ব-১৯ এবং ‘এ’ টিমের হয়ে অনেক কাজ করেছেন। ভারত তো জুনিয়র লেভেলকে দ্রাবিড়ের হাতে ছেড়ে দিয়ে নিশ্চিন্তে আছে। আমি বলবো দ্রাবিড় তার কাজে পুরোপুরি সফল। তাকে অনুপ্রেরণা হিসেবে নিয়ে আমরাও একই পথে যেতে চাই।

দ্রাবিড় ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ এবং ‘এ’ টিমের জন্য অনেক করেছেন। দুই লেভেল থেকেই জাতীয় দলের জন্য ক্রিকেটার বের করার মূল কারিগর তিনি। গত বছর তার শিষ্যরা অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জিতেছে। অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি অ্যালান বোর্ডার নির্বাচক পদে সফল, পন্টিং জাতীয় দলের বর্তমান কোচিং স্টাফের সঙ্গে যুক্ত।

এহসান মানি আরও জানান, আমরা চাই সাবেক ক্রিকেটারদের অ্যাম্বাসেডর হিসেবে দেশের ক্রিকেটের উন্নতিতে কাজে লাগাতে। ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমিতে তারা অনেক কিছু শেখাতে পারবে, নিজেদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারবে। বিদেশি কোচদের পাশাপাশি আমাদের দেশীয় কোচরাও কাজ করতে পারবে। ভারত যেমন দেশীয় কোচের পাশাপাশি বিদেশি কোচদের দিয়ে কোচিং স্টাফ গড়ে সফল হয়েছে। আমরা এর থেকে কিছু শিখতে পারি।

জুনিয়র লেভেলকে ইউনুস খানের হাতে দেওয়ার ইচ্ছে থাকলেও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড লাহোরের ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমির দায়িত্ব দিতে পারেন সাবেক টেস্ট অধিনায়ক মোহাম্মদ ইউসুফকে। তবে, তাকে ব্যাটিং কোচের ভূমিকায় দেখা যেতে পারে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত