প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মৌলভীবাজারের বাইক্কা বিল মাছের পাশাপাশি পাখিদেরও অভয়াশ্রম

নিউজ ডেস্ক: মৌলভীবাজারের হাইল হাওরের বাইক্কা বিল মাছের পাশাপাশি এখন পাখিদেরও অভয়াশ্রম। প্রতিদিন হাজার মাইল দূর থেকে এসে ভিড় করছে অসংখ্য পরিযায়ী পাখি। সকাল-সন্ধ্যা অতিথি ও স্থানীয় পাখির ওড়াউড়ি আর কলকাকলিতে মুখর বিলটি হয়ে উঠেছে পাখির এক রাজ্য। তবে, পাখির খাদ্য সংকট, শিকারির তৎপরতা ও আবাসন পরিবর্তনের কারণে দিনকে দিন কমে আসছে পাখির উপস্থিতি।

শীতের শুরুতেই ঝাঁক বেঁধে বিলে আসে পরিযায়ী পাখিরা। বিলের এ-প্রান্ত থেকে ও-প্রান্ত শুধু এদেরই অবাধ বিচরণ। ডানা ঝাপটানো শব্দে চঞ্চলতায় ভরে উঠেছে নির্জন বিলের প্রান্তর। আকাশে মালা গাঁথছে ঝাঁকবাঁধা ছোট-বড় পাখি।

রাত কিংবা ভোর অথবা দিনের সোনালি রোদ গায়ে মেখে বেগুনি কালেম, সরালী, বালিহাঁসসহ নাম না জানা অসংখ্য পাখির জলকেলি বিলের সৌন্দর্যকে বাড়িয়ে তুলেছে কয়েকগুণ। আর এই অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগে পাখি ও প্রকৃতি প্রেমীদের বেড়ানোর অন্যতম কেন্দ্র হয়ে উঠেছে এই বাইক্কা বিল।

খাদ্য ও আবাসন সঙ্কটের পাশাপাশি শিকারিদের তৎপরতার কারণে পাখিদের উপস্থিতি কমে যাওয়ার আশংকা দর্শনার্থীদের।

দর্শনার্থীরা বলেন, ‘এখানে তিন থেকে চার প্রকার পাখি আছে। আগেরবার যখন এসেছিলাম তখন সুন্দর সুন্দর পাখি ছিল। কিন্তু এবারে নাই। এছাড়া রাস্তা ভাঙ্গাচোরা। এটি ঠিক করা হলে আরো দর্শনার্থী আসতো’

জেলা প্রশাসন বলছে, বাইক্কা বিলকে পর্যটনবান্ধব হিসেবে গড়ে তোলা হবে। সিএলআরএস সাইড অফিসার মো মনিরুজ্জামান চৌধুরী বলেন, ‘বাইক্কা বিলের যাওয়ার রাস্তার সমস্যার বিষয়ে জেলা প্রশাসন ওয়াকিবহাল। এছাড়া আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি আমাদের নজরে আছে।’

বাইক্কা বিলসহ আশেপাশের ১শ’ ৭০ হেক্টর আয়তনের এলাকাকে পাখির স্থায়ী অভয়াশ্রম ঘোষণা করেছে সরকার। গত বছরের পাখি শুমারি অনুযায়ী, ১০ হাজার ৭শ’ ১২টি পাখির অস্তিত্ব পাওয়া গেছে বাইক্কা বিলে। প্রতি শীতেই ৪০ প্রজাতির দেশি বিদেশি পাখির আগমন ঘটে। সূত্র: সময় টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত